ঘটনাস্থলে চাকু উদ্ধার, আলামত সংগ্রহ চলছে

রাজধানীর গোপীবাগে এক বাড়িতে ৬ জনকে জবাই করে আলোচিত হত্যাকান্ডের আলামত সংগ্রহের চেষ্টা চলছে। রাত ১০টার দিকে ঢাকা পুলিশের একটি সিআইডি টীম বাড়ির (যে বাড়িতে হত্যাকান্ড ঘটেছে) ভেতরে ঢুকেছে। একটি চাকু ছাড়া এখন পর্যন্ত উল্লেখ করার মত আর কোন আলামত সংগ্রহ করতে পারেনি তারা।

এ বিষয়ে ওয়ারী জোনের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার মেহেদী হাসান জানান, হত্যাকান্ডের আগে হত্যাকারীরা নিজদের ডাকাত বলে পরিচয় দিয়েছে। ওই বাড়ি থেকে উদ্ধার হওয়া এক নারী তাই বলেছেন আমাদের কাছে। সে তথ্যের ভিত্তিতেই সিআইডি টীম বাড়িতে কোন ডাকাতি হয়েছে কি না তাও খতিয়ে দেখছে। সিআইডি র‍্যাবসহ উর্ধ্বতন ইন্টেলিজেন্সরা ভেতরে আছেন। তারা খুনের আলামত সংগ্রহ করছেন।

লাশ কখন বাইরে আনা হবে জানতে চাইলে মেহেদী হাসান বলেন, আলামত খোঁজে না পাওয়া পর্যন্ত লাশে হাত দেয়া হবে না। এটা রাত ১২টাও হতে পারে, তার বেশিও হতে পারে।

এই হত্যাকান্ডকে পরিকল্পিত বলে দাবি করেছেন তিনি।

উল্লেখ্য, আজ শনিবার সন্ধ্যা সাড়ে সাতটার দিকে গোপীবাগের রামকৃষ্ণ মিশন রোডের ৬৪/৬ নম্বরে চার তলা ভবনের দ্বিতীয় তলায় ৬ জনকে জবাই করে খুন করেছে কিছু অস্ত্রধারী সন্ত্রাস। নিহতরা হলেন- কথিত পীর ভাড়াটে লুৎফর রহমান ফারুক (৫৫), তার ছেলে মনির হোসেন (৩০), শাহিন (৩২), সোহরাব (৩২), রুবেল (৩০), এবং বাড়ির কেয়ারটেকার মঞ্জু (৩০)। এদের মধ্যে এক ঘরে দুই জনের গলাকাটা লাশ পাওয়া গেছে। অন্য আরেকটি ঘরে পাওয়া গেছে বাকি চার জনের লাশ।

এই ঘটনায় সন্দেহজনকভাবে ৭ জনকে আটক করেছে পুলিশ।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।