কচুয়ায় নবজাতকের মৃত্যুর ঘটনায় হাসপাতাল ভাংচুর!

চাঁদপুরের কচুয়ায় নবজাতকের মৃত্যুর ঘটনায় হাসপাতাল ভাংচুর করেছে নবাজাতকের ক্ষুদ্ব আত্মীয় স্বজন। ২২ ডিসেম্বর (রবিবার) সকাল সাড়ে ৯টায় কচুয়া মর্ডান হসপিটাল ও ডায়াগনস্টিক সেন্টারে এ ঘটনা ঘটে ।
জানাগেছে উপজেলার শ্রীরামপুর গ্রামের জাকির হোসেনের স্ত্রী সুমি আক্তারের (২০) প্রসব ব্যাথা উঠলে ভোর রাতে ওই হাসপাতালে নিয়ে আসে।

কর্তব্যরত ডাক্তার সৈয়দ শীষ মুহাম্মদ তার অবস্থা বেগতিক দেখে কুমিল্লা হাসপাতালে পাঠানোর পরামর্শ দেন। নবজাতকের পরিবারের অভিযোগ, ডাক্তারের কথা না শুনে তাকে জোরপূর্বক হাসপাতালের নার্স হালিমা আক্তার ও তার দুই সহযোগী তাকে সাইট সিজারের মাধ্যমে প্রসব ঘটালে মৃত বাচ্চা ভূমিষ্ট হয়।

এ ঘটনার পর নবজাতকের মা সুমি আক্তার হাজীগঞ্জের একটি প্রাইভেট হাসপাতালে আশঙ্কাজনক অবস্থায় ভর্তি করা হয়েছে। পরে নিহত নবজাতকের আত্মীয় স্বজন উত্তেজিত হয়ে হাসপাতালের ইসিজি, আল্ট্রাসোনো ও গ্লাস ভাংচুর, হাসপাতালের কর্মচারীদেরকে মারধর করে । এ ব্যাপারে ওই হাসপাতালের অভিযুক্ত নার্স হালিমা আক্তার জানান, নবজাতকের আত্মীয় স্বজনের পরামর্শেই আমি এ ডেলিভারী করি। মর্ডান হসপিটাল ও ডায়াগনস্টিক সেন্টারের বিরুদ্ধে এর পূর্বেও এই ঘরনের ঘটনার একাধিক অভিযোগ রয়েছে। ভুক্তভোগী অনেকে জানান, টাকার জন্য কর্তৃপ রোগীদেরকে অন্য হাসপাতালে প্রেরণ করে না।  এ ঘটনায় কচুয়া থানায় মৃত নবজাতকের পরিবার অভিযোগ দায়ের করেছে।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।