কক্সবাজারবাণীর সাহিত্য সম্পাদক তরুন কবি মাসউদ আর নেই

বাংলা সাহিত্যের মেধাবী সাধক দৈনিক কক্সবাজার বাণী’র সাহিত্য সম্পাদক কবি মাসউদ শাফি আর নেই। রাত জেগে তিনি আর লিখবেন না কবিতা, ছোট গল্প ও সাহিত্যের কথামালা। ছাত্র ইউনিয়ন কিংবা অন্য কোন সৃজনশীল সংগঠনের ব্যানারে কক্সবাজারের কোথাও আর কোন দিন রাজপথ কাপানো বক্তৃতাও দেবেন না কবি মাসউদ শাফি।
তিনি ২৩ ডিসেম্বর সোমবার ভোর রাতে কক্সবাজার জেলা সদর হাসপাতালে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। (ইন্না—-রাজেউন)। শুধু লেখালেখি ও সাহিত্যেও প্রতি অবিচল দুর্বল তরুন এই লেখক দুনিয়ার কোন কিছুর প্রতি লালায়িত ছিলেন না। অবিবাহিত কবি মাসউদ এর মৃত্যুকালে বয়স হয়েছিল আনুমানিক ৩০। সময়ের ব্যবধানে সৃজনশীল লেখনী শক্তি ও প্রতিভার জোরে কক্সবাজার সাহিত্যাঙ্গনে জনপ্রিয় হয়ে উঠা কবি মাসউদ মৃত্যুর আগে লিভার জন্ডিস রোগে ভুগছিলেন। তাই ক’দিন আগে চিকিৎসার জন্য তিনি জেলা সদর হাসপাতালে ভর্তিও হয়েছিলেন। কিন্তু দুর্ভাগ্য দূরারোগ্য লিভার জন্ডিসে উপযুক্ত চিকিৎসা খরচের অভাবে তিনি সেখানে মৃত্যু যন্ত্রণায় ছটপট করলেও দেশের সরকারী চিকিৎসা ব্যবস্থার নিষ্ঠুর কবলে পড়ে তিনি আর বাঁচতে পারলেন না।
অভিযোগ উঠেছে, দারিদ্রতার নির্মম কষাগাতে জর্জরিত এই তরুন মেধাবি কবি হাসপাতালে প্রয়োজনীয় চিকিৎসা অভাবে কাতরালেও নির্দয় চিকিৎসকরা তার দিকে একটু মানবিক দৃষ্টিতে ফিরে তাকাননি। সরকারী হাসপাতাল থেকে নামমাত্র কিছু সস্তা ঔষুধ দিয়ে চিকিৎকরা নিজেদের পেশাগত দায় এড়িয়ে সম্ভাবনাময় তরুন এই কবিকে মৃত্যুর দিকে ঠেলে দেয়। ফলে টানা কয়েকদিন জেলা সদর হাসপাতালে নামেমাত্র চিকিৎসা নিয়ে অকালেই মৃত্যুর কুলে ঢলে পড়েন কবি মাসউদ। অবিশ্বাস্য হলেও সত্য মৃত্যুর আগে অসাধারণ মেধাবী এই কবির শয্যা পাশে কোন স্বজন ছিলেন না। দৈনিক কক্সবাজারবাণী সম্পাদক ফরিদুল মোস্তফা খান যতটুকু আর্থিক সহযোগিতা করতে পেরেছিলেন তাই ছিল কবির মাসউদের চিকিৎসার শেষ সম্বল। এদিকে মৃত্যুর পরপরই কবির মরদেহ তার গ্রামের বাড়িতে পাঠিয়ে দেওয়া হয়। একই দিন বিকেলে উখিয়ায় মাসউদের গ্রামের বাড়িতে নামাজে জানাজা শেষে পারিবারিক কবরস্থানে তাকে চির নিদ্রায় শায়িত করা হয়। জানা গেছে, তরুন এ কবির জানাজায় হাজারো মানুষের ভীড় ছিল। তার অকাল মৃত্যুতে এলাকায় নেমে এসেছে শোকের ছায়া। উপস্থিত সকলেই অকাল নিহত এই কবির বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা করে তার শোক সন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করেন।
শোক:
কক্সবাজার সাহিত্য আকাশে উদয়মান কবি মাসউদের অকাল মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন তার শেষ কর্মস্থল দৈনিক কক্সবাজারবাণীর সম্পাদক ফরিদুল মোস্তফা খান, প্রধান সম্পাদক আতাহার ইকবাল সহ কর্মরত সকল সাংবাদিক ও কর্মকর্তা-কর্মচারীরা। বিবৃতিতে কক্সবাজারবাণী পরিবার তার বিদেহী আত্মার শান্তি কামনা করে বলেন, কবি মাসউদ শাফির মৃত্যুতে কক্সবাজার হারালো সম্ভাবনাময় এক প্রতিভা। যা কখনোই পুরণ হওয়ার নয়। কক্সবাজারবাণী পরিবার একই সাথে তার শোক সন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনাও জ্ঞাপন করেন।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।