মহেশখালীতে পুলিশের সাথে বন্দুক যুদ্ধে খলিল ডাকাত নিহত, আগ্নেয়াস্ত্র উদ্ধার

দ্বীপ উপজেলা মহেশখালী পুলিশের সাথে বন্দুক যুদ্ধে শীর্ষ ডাকাত খলিল নিহত হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে, গতকাল সকাল ৭টায় উপজেলাস্থ ধলঘাটা ইউনিয়নের পন্ডিতের ডেইল নামক স্থানে। নিহত ডাকাতের নাম খলিল(২৬)। সে কালারমারছড়া ইউনিয়নের নুনাছড়ি গ্রামের চান মিয়া মাঝির পুত্র।

কালারমারছড়া পুলিশ ফাঁড়ির আইসি এস.আই শাহনেওয়াজ চৌধুরী জানান, উপজেলার তালিকাভূক্ত শীর্ষ সন্ত্রাসী ডাকাত দলের প্রধান খলিল ডাকাত ২৩ডিসেম্বর রাতে তার গ্রুপ নিয়ে ধলঘাটার পশ্চিমে বঙ্গোপসাগরে ডাকাতির প্রস্তুতি নিচ্ছিল এমন সংবাদের ভিত্তিতে পুলিশ গভীর রাত থেকে ধলঘাটায় অভিযান পরিচালনা করে। পুলিশী অভিযানের খবর পেয়ে ভোর রাতে সে ধলঘাটার পন্ডিতের ডেইল গ্রামে জৈনক ওসমানের বাড়ীতে আশ্রয় নেয়। পুলিশ সেখানে পূণরায় ধাওয়া করলে খলিল বাহিনীর সাথে পুলিশের বন্ধুক যুদ্ধে খলিল পায়ে গুলিবিদ্ধ হয়ে পড়ে যায়। এসময় পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে ৩টি আগ্নেয়াস্ত্র, ৮রাউন্ড কার্তুজ উদ্ধার করে। আহত অবস্থায় তাকে মহেশখালী হাসপাতালে নিয়ে আসলে কর্তৃব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষনা করে।

নিহত ডাকাত খলিলের বিরুদ্ধে মহেশখালী থানায় ৫টি হত্যা, ৪টি অস্ত্র, ৩টি হত্যার চেষ্টা, ১টি চাদাবাজি, ১টি পুলিশএচল্ট সহ মোট ১৮টি মামলা রয়েছে বলে মহেশখালী থানা সূত্রে জানায়। মহেশখালী থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আলমগীর হোসেন বলেন, মহেশখালী উপজেলার আইনশৃঙ্খলার উন্নয়নে তালিকাভূক্ত সন্ত্রাসীদের গ্রেপ্তারে জনপ্রতিনিধি ও স্থানীয় জনসাধারণের আন্তরিক সহযোগীতা প্রয়োজন।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।