লাকসামে পাশের হার ৯৩ দশমিক ২৪,জিপিএ-৫ পেয়েছে ২৪৩ জন

কুমিল্লার লাকসাম ও মনোহরগঞ্জ উপজেলায় গতকাল রোববার জুনিয়র স্কুল সার্টিফিকেট (জেএসসি) পরীক্ষার ফলাফল ঘোষণার পর শিক্ষার্থী, অভিভাবক ও শিক্ষকদের মাঝে ছিল আনন্দ ও উচ্ছ্বাসের ঢেউ।
লাকসাম উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কার্যালয় সূত্রে জানা যায়, এ বছর জুনিয়র স্কুল সার্টিফিকেট (জেএসসি) পরীক্ষায় উপজেলার ২৫টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান থেকে মোট দুই হাজার ৯৭৬ জন শিক্ষার্থী পরীক্ষায় অংশ গ্রহণ করেছে। উত্তীর্ণ হয়েছে দুই হাজার ৭৭৫ জন। তারমধ্যে জিপিএ-৫ পেয়েছে ২৪৩ জন। পাশের হার ৯৩ দশমিক ২৪ শতাংশ।
এদিকে মনোহরগঞ্জ উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা তৈয়ব হোসেন জানান, ওই উপজেলার ২৭টি বিদ্যালয় থেকে মোট দুই হাজার ৯০১ জন শিক্ষার্থী পরীক্ষায় অংশ গ্রহণ করেছে। সেখানে পাসের হার ৯১ দশমিক ৮৯ শতাংশ। জিপিএ-৫ পেয়েছে ২৩৩ জন।

লাকসাম উপজেলায় শীর্ষে লাকসাম পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়:

এবার জুনিয়র স্কুল সার্টিফিকেট (জেএসসি) পরীক্ষায় উপজেলার ২৫টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের মধ্যে লাকসাম পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় উপজেলায় শীর্ষ স্থানে রয়েছে। এই বিদ্যালয় থেকে ১৯৩ জন শিক্ষার্থী পরীক্ষায় অংশ গ্রহণ করেছে এবং জিপিএ-৫ পেয়েছে ৪৮ জন।
উপজেলার মুদাফরগঞ্জ উচ্চ বিদ্যালয় থেকে ৩২৮ জন শিক্ষার্থী পরীক্ষায় অংশ গ্রহণ করে পাস করেছে ৩২৫ জন এবং জিপিএ-৫ পেয়েছে ৪৫ জন। এ ছাড়া, লাকসাম পাইলট বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় থেকে জিপিএ-৫ পেয়েছে ৩৫ জন।
লাকসাম পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. শাহজাহান মোল্লা বলেন, শিক্ষার্থীদের আন্তরিক প্রচেষ্টা, অভিভাবকদের সচেতনতা, শিক্ষকমন্ডলীর কঠোর পরিশ্রমের মাধ্যমে পাঠদান এবং ব্যবস্থাপনা কমিটির সঠিক দিক নির্দেশনা এই ফলাফল অর্জনে সয়হায়ক ভূমিকা রেখেছেন।

লাকসাম উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মো. গাউছুল আজম বলেন, গত বছরের চেয়েও এবারের ফলাফল অনেক ভালো।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।