সোনাগাজীতে চলছে শোকের মাতম ॥ জনতার মাঝে আতংক

দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ভোট গ্রহণ চলাকালে রবিবার আইন-শৃংঙ্খলা বাহিনীর গুলিতে উত্তর চর চান্দিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে দু’যুবদল-ছাত্রদল নেতার মৃত্যুতে সোনাগাজী পৌর শহর সহ চর চান্দিয়া গ্রামে চলছে শোকের মাতম। নিহত যুবদল নেতা জামশেদ আলম ও ছাত্রদল নেতা শহীদ উল্যাহর বাড়ীতে সৃষ্টি হয়েছে হৃদয় বিদারক পরিস্থিতি। উভয়ের পরিবারের সদস্য সহ যুবদল-ছাত্রদল নেতাকর্মীরা কোন ভাবেই এই মৃত্যুকে  মেনে নিতে পারছেন না। জামশেদ আলম ও শহীদুল্যার মাতা-পিতা, ভাই-বোন ও আত্মীয় স্বজনের কান্নায় আকাশ-বাতাস ভারী হয়ে আসছে। উভয়ের মাতা-পিতা পুত্র হারানোর বেদনায় বাকরুদ্ধ হয়ে পড়ে আছেন। থমিয়ে থমিয়ে চলছে কাঁন্নার রোল। এ যেন এক হৃদয় বিধারক ঘটনা। নিহত জামশেদ আলম ও শহীদ উল্যার সহপাঠীদের মধ্যেও চলছে শোকের মাতম।

এছাড়াও পুরো উপজেলায় বিএনপি, যুবদল-ছাত্রদল সহ সর্বস্থতের জনতার মাঝে নেমে এসেছে শোকের ছায়া। সোমবার রাতেই ময়না তদন্ত শেষে উভয়ের লাশ পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হয়।

নিহত যুবদল-ছাত্রদল নেতার জানাজার নামাজে হাজারো জনতার ঢল নামে। এদিকে নির্বাচনের পরথেকে সোনাগাজীতে চরশ উত্তেজনা ও যুবদল-ছাত্রদল নেতাকর্মীদের মাঝে ক্ষোভ বিরাজ করছে। সন্ধ্যা নেমে এলেই সোনাগাজী পৌর শহর সহ আশে পাশের এলাকাগুলো পরিনত হয় ভুতুড়ে শহরে। এ যেন এক ভুতের শহর ও আতংকের জনপথ। কিন্তু নির্বাচন পরবর্তী যে কোন ধরনের সহিংস ঘটনা এড়াতে পৌর শহর সহ উপজেলার সর্বত্র সেনা বাহিনী, বিজিবি, র‌্যাব, পুলিশ সহ আইন শৃংঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা টহল দিলেও জনগনের মাঝে নেই কোন ধরনের স্বস্তি। সর্বত্র বিরাজ করছে চরম আতংক।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।