পানিতে ডুবে ও বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে নিহত ১২

মিরসরাইয়ে গত এক বছরে পানিতে ডুবে ছয়জন, সাপের কামড়ে একজন, বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে চারজন এবং বজ্রপাতে একজনের মৃত্যু হয়েছে।

উপজেলার মিরসরাই এবং জোরারগঞ্জ থানার তথ্য অনুযায়ী গত বছরের ৯ এপ্রিল উপজেলার মায়ানী ইউনিয়নের সৈদালী গ্রামে পানিতে ডুবে মোহাম্মদ মাসুম (১০) নামের এক স্কুল ছাত্রের মৃত্যু হয়। দুপুরে স্কুল থেকে বাড়ি ফিরে সাঁতার না জানা মাসুম পুকুরে গোসল করার সময় ঘাট থেকে ছিটকে পড়ে গভীর পানিতে তলিয়ে যায়। পরে প্রতিবেশীরা তার লাশ উদ্ধার করে।

১৩ মে উপজেলার ১৩ নম্বর মায়ানী ইউনিয়নের পূর্ব মায়ানী গ্রামের নাসির উদ্দিনের ছেলে ফয়সাল (৪) নামের এক শিশুর পানিতে ডুবে মৃত্যু হয়।

১৬ জুন উপজেলার বামনসুন্দর দারোগারহাটের জসীম উদ্দিনের ছেলে মো: জুবায়েদ (৬) নামের এক শিশুর মৃত্যু হয় এবং জয়নাল আবেদীনের মেয়ে সাবরিনা আক্তার ইশরাত (৫) নামের আরও একজন আহত হয়। খেলাধূলার এক পর্যায়ে জুবায়েদ বাড়ির পুকুরে পড়ে যায়। তাকে উদ্ধার করতে গিয়ে ইশরাতও পানিতে পড়ে ভাসতে থাকে। প্রতিবেশীরা তাদেরকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে আসেন। সেখানে কর্তৃব্যরত চিকিৎসক জুবায়েদকে মৃত ঘোষণা করেন।

১২ আগস্ট উপজেলার দূর্গাপুর ইউনিয়নের মহামায়া ইকো পার্কে বেড়াতে এসে মৃত্যু হয় ছাগলনাইয়া পৌরসভার উত্তর পানুয়া গ্রামের পোস্ট মাষ্টার মোঃ শাহজাহানের একমাত্র সন্তান কফিল উদ্দিন সুমন নামের এক শিক্ষার্থীর। ছাগনাইয়া উপজেলা থেকে কলেজ শিক্ষার্থী কফিল উদ্দিন মামুন তার বন্ধুদের নিয়ে পর্যটন কেন্দ্র মহামায়া লেকে ঘুরতে এসেছিল। ইঞ্জিন চালিত নৌকায় করে ফেরার পথে লেকের বাঁধ থেকে দুইশ গজ দূরে নৌকা থেকে ঝাঁপ দিয়ে সাঁতার কেটে বাঁধের দিকে আসছিলো সে। সে সময় পানিতে ডুবে গেলে কয়েকদিন পর তার মৃতদেহ পানিতে ভেসে ওঠে।

১৩ আগস্ট উপজেলার ৪ নম্বর ধুম ইউনিয়নের মোবারকঘোনা আনন্দ বাজার এলাকার নূর হোসেন মিয়ার বাড়ির নিজাম উদ্দিনের একমাত্র ছেলে জিহাদ উদ্দিন জিহান (৫) নামের এক শিশুর পানিতে ডুবে মারা যায়। বাড়ির সবাইকে ফাঁকি দিয়ে খেলার ছলে পুকুরে ডুবে যায় জিহাদ উদ্দিন জিহান। অনেকক্ষন খোঁজার পর বাড়ির পিছনের পুকুর থেকে জিহানের লাশ উদ্ধার করা হয়।

২৩ আগস্ট উপজেলার ১১ নম্বর মঘাদিয়া ইউনিয়নের মাতো ভূঁইয়া বাড়ির ফিরোজের ছেলে সাইমন (৪) নামে এক শিশু পানিতে ডুবে মারা যায়। খেলা সময় হঠাৎ সাইমন নিখোঁজ হয়ে যায়। খোঁজাখুঁজির পরে বাড়ির পাশের একটি পুকুরে সাইমনে নিথর দেহ ভাসতে দেখেন সাইমনের দাদু।

১৫ সেপ্টেম্বর উপজেলার মিঠানালা ইউনিয়নের সাধুরবাজার এলাকায় সাপের কামড়ে রেজাউল করিমের মেয়ে আফরিন আক্তার (২) নামের এক শিশুর মৃত্যু হয়। আফরিন দুপুরে পুকুর ঘাটে গেলে আকস্মিক বিষাক্ত সাপ আরফিনকে দংশন করে। তাকে উদ্ধার করে উপজেলা সদরের মাতৃকা হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

এছাড়া বিদ্যুৎ স্পৃষ্ট হয়ে চারজন এবং বজ্রপাতে এক জনের মৃত্যু হয়েছে।

গত বছরের শুরুতেই ২৮ জানুয়ারি উপজেলার কাটাছরা ইউনিয়নের উত্তর বামনসুন্দর গ্রামে মোস্তফা (৫০) নামে অগ্নিদগ্ধ হয়ে এক ব্যক্তির মৃত্যু হয়েছে। গাছের ডালে বাঁধা মাইক খুলতে মাইকম্যান মোস্তফা গাছে ওঠেন। এ সময় গাছের পাশের বিদ্যুতের তার থেকে আগুনের লেলিহান শিখা পুরো গাছে ছড়িয়ে পড়লে মোস্তফা ঘটনাস্থলে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে মারা যান।

৬ মে উপজেলায় ৬ নম্বর ইছাখালী ইউনিয়নের উত্তর কাজী গ্রামে বজ্রপাতে এক ব্যক্তির নিহত হন। জহিরুল আলম গরুর জন্য ঘাস কাটতে বাড়ির পার্শ্বের মাঠে গেলে বজ্রপাতে গুরুতর আহত হন। এসময় প্রতিবেশীরা তাকে মাঠে পড়ে থাকতে দেখে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স মস্তাননগর হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত ডাক্তার তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

১৩ মে উপজেলার ১০নং মিঠানালা ইউনিয়নের মধ্যম মিঠানালা গ্রামে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে দেলোয়ার হোসেনের পুত্র বেলায়েত হোসেন (২৫) নামে এক যুবকের মৃত্যু হয়।

৩ জুন উপজেলার ১৬ নম্বর সাহেরখালী ইউনিয়নের ডোমখালী গ্রামে শাহ এমরান (৪৫) নামে এক ব্যক্তির মৃত্যু হয়েছে। শাহ এমরান নিজের ঘরে বৈদ্যুতিক তারের কাজ করছিল। এ সময় তাঁরের ছেঁড়া একটি অংশ শরীরে লাগলে তিনি বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হন।

১৪ ডিসেম্বর উপজেলার ৮ নম্বর দুর্গাপুর ইউনিয়নের পূর্ব দুর্গাপুর গ্রামের গোলদার বাড়িতে বিদ্যুৎ স্পৃষ্ট হয়ে দীপক রাজ গোলদার (৫৫) নামে এক কৃষকের মৃত্যু হয়। বাড়ির পাশে জমিতে কাজ করার সময় চেরা বৈদ্যুতিক তার জড়িয়ে তিনি বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে ঘটনাস্থলেই মারা যান।

এ বিষয়ে সুজন (সুশাসনের জন্য নাগরিক) মিরসরাই উপজেলার সভাপতি ও মাতৃকা হাসপাতালের ব্যবস্থাপনা পরিচালক অধ্যাপক ডা. মো. জামশেদ আলম জানিয়েছেন, গত বছর পানিতে পড়ে শিশুমৃত্যু বেশি হয়েছে। পরিবারের সদস্যরা একটু সচেতন হলেই এ রকম অনাকাঙ্ক্ষিত মৃত্যুর হাত থেকে রক্ষা পাওয়া যাবে। এছাড়া বিদ্যুতের কাজ করার সময় সাবধনতা অবলম্বন করতে হবে।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।