গাজীপুরে সহকর্মীর পিস্তলের গুলিতে কনস্টেবল আহত

গাজীপুর জেলা কারাগার চত্বরে বৃহস্পতিবার পুলিশের এক কর্মকর্তার পিস্তলের গুলিতে এক পুলিশ কনস্টেবল গুলিবিদ্ধ হয়ে আহত হয়েছেন। গুলিবিদ্ধ কনস্টেবলের নাম আব্দুল হালিম (৫৮)। তিনি গাজীপুর মহানগরের জাঝর এলাকার সফিজ উদ্দিনের ছেলে। আহত অবস্থায় তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

জানা গেছে, গাজীপুর জেলা কারাগার থেকে বিভিন্ন মামলার আসামিদের গাজীপুর আদালতে নিয়ে যেতে বৃহস্পতিবার সকাল ৯টার দিকে এএসআই ফজলুল হকের নেতৃত্বে কোর্ট পুলিশের কয়েকজন কনস্টেবল ওই কারাগারে যান। অস্ত্র নিয়ে মূল কারাগারের ভেতরে প্রবেশের অনুমতি না থাকায় এএসআই ফজলুল হক তার পিস্তলটি সহকর্মী কনস্টেবল হালিমের কাছে রেখে জেলারের কক্ষে প্রবেশ করেন। এ সময় হালিম পিস্তলটি নিয়ে মূল কারা ফটকের সামনে কারাগার ক্যাম্পাসে অপেক্ষা করছিলেন। এ সময় হালিম পিস্তলটি নিয়ে নাড়াচড়া করার সময় ট্রিগারে চাপ লেগে হঠাৎ বিকট শব্দে এক রাউন্ড গুলি বেরিয়ে যায়। তবে এতে কেউ হতাহত হননি।

এদিকে গুলির শব্দ শুনে এএসআই ফজলুল হক ঘটনাস্থলে ছুটে আসেন। তিনি পিস্তলটি হাতে নিয়ে পরীক্ষা করার সময় দ্বিতীয় দফায় আরো এক রাউন্ড গুলি বেরিয়ে যায় এবং তা হালিমের পেটে বিদ্ধ হয়। পরে গুলিবিদ্ধ হালিমকে উদ্ধার করে প্রথমে গাজীপুর সদর হাসপাতালে ও পরে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়।

এই ব্যাপারে এএসআই ফজলুল হক জানান, কারাগারে প্রবেশের সময় হালিমের কাছে রেখে যাওয়া তার পিস্তল থেকে মিস-ফায়ারের পর গুলির খোসা হালিমের পেটে লাগে। এতে হালিমের সামান্য রক্তপাত হয়েছে।

গাজীপুর কোর্টের ইন্সপেক্টর রবিউল ইসলাম বলেন, “শুনেছি অসাবধানতাবশত গুলি বের হয়ে মাটিতে লেগে গুলির খোসা হালিমের বেল্টে লেগেছে। তাকে ঢাকা মেডিকেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।”

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।