লাকসামে বন্ধুর ধাক্কায় বন্ধু মৃত্যু শয্যায় !

কুমিল্লার লাকসামে গত রোববার রাতে এক বন্ধুর ধাক্কায় আরেক বন্ধু পাঁচতলা বিল্ডিংয়ের ছাঁদ থেকে পড়ে এখন হাসপাতালের বেডে মৃত্যুর সাথে লড়াই করছে।

ঘটনাটি ঘটেছে শহরের বাইপাস্ সংলগ্ন লাকসাম মেডিকেল সেন্টার নামে একটি প্রাইভেট হাসপাতালের পাঁচতলা বিল্ডিংয়ের ছাঁদে।সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায় ওই হাসপাতালের ছাঁদে নিরাপত্তার জন্য কোন বেষ্টনি কিংবা রেলিং নেই !এছাড়া রোগী কিংবা জনসাধারণের জন্য হাসপাতালে উঠা-নামার সিড়িতেও নেই কোন সুব্যবস্হা।

পারিবারিক সূত্রে জানাযায়,মো. মুরশিদ আলম (১০) ও মো.রায়হান (১১)লাকসামের উল্মুম-কোরা মাদ্রাসার তৃতীয় শ্রেণীর ছাত্র।রায়হান পৌর শহরের কাদ্রার মো. খলিলুর রহমানের ছেলে।

তারা মাদ্রাসার ক্লাস শেষে ওই হাসপাতালের ছাঁদে অবস্হিত একটি কক্ষে গোলাম কিবরিয়া নামে এক শিক্ষকের কাছে প্রাইভেট পড়ত।ওই দিন রাত পৌনে ৮টার দিকে রায়হান একা বাহিরে প্রসাব করতে ভয় পায় বলে মুরশিদকে তার সাথে যেতে বলে।এক পর্যায়ে রায়হান তার প্রসাব শেষে মুরশিদকে পেছন থেকে ধাক্কা দিলে সে সঙ্গে সঙ্গে পাাঁচ তলার ছাঁদ থেকে নিচে মাটিতে পড়ে যায়।কিন্তুু রায়হান তাকে ধাক্কা মেরে ফেলে দিয়ে সে তার প্রাইভেট শিক্ষককে এ ঘটনা বলে।পরে তৎক্ষনাত ওই শিক্ষকসহ কয়েকজন দ্রুত ওই হাসপাতালের জরুরী বিভাগে ভর্তি করে।

মারাক্তক জখম প্রাপ্ত মুরশিদের অবস্হা আশঙ্কাজনক এবং তার ডান হাত,ডানদিকের মুখের মাড়ি,ও ডান পাশের পেছনের পাজড়ে মারাক্তক জখম হয়েছে বলে জানায় চিকিৎসকরা।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।