কুমিল্লার দুই উপজেলায় মাঠে নেমেছে সেনা ও বিজিবি

কুমিল্লা আদর্শ সদর ও সদর দক্ষিণ উপজেলা নির্বাচনকে সামনে রেখে সহিংসতা মোকাবেলায় এবং নির্বাচনকে অবাধ ও সুষ্ঠু করতে মাঠে নেমেছে সেনা বাহিনী ও বিজিবি। ১৯ মে সোমবার কুমিল্লার এ দুই উপজেলায় নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। আইনশৃংখলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে শনিবার সকাল থেকে টহল দিচ্ছে সেনাবাহিনী ও বিজিবি । এই দুই উপজেলা নির্বাচন সুষ্ঠু ও অবাধ করতে মোতায়েন করা হয়েছে ৫ প্লাটুন সেনা ও ৬ প্লাটুন বিজিবি সদস্য।

 

এছাড়াও পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে সদরে ৮টি ও সদর দেিণ ৫টি পুলিশের স্ট্রাইকিং ফোর্স কাজ করবে। এদিকে নির্বাচনের বিধি অনুযায়ী শুক্রবার মধ্যরাত থেকে প্রার্থীদের সকল প্রকার প্রচার প্রচারনা বন্ধ রয়েছে। ফলে এলাকর সরগরম কমে কিছুটা শান্ত পরিবেশ বিরাজ করছে।

 

শুক্রবার জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে উপজেলা নির্বাচন সুষ্ঠু অবাদ ও নিরপে করতে জেলা প্রশাসক মো: তোফাজ্জল হোসেন মিয়ার সভাপতিত্বে জরুরি বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। ওই সভায় উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট গোলামুর রহমান, সেনা বাহিনীর ১৬ ইষ্ট বেঙ্গল অধিনায়ক লে: কর্নেল আইনুল মোরশেদ খান পাঠান, ১০ বিজিবি অধিনায়ক লে: কর্নেল সহিদুর রহমান, পুলিশ সুপার টুটুল চক্রবর্তী, জেলা নির্বাচন অফিসার রাশেদুল ইসলাম, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার উত্তর জাহাঙ্গীর হোসেন, আনসার ও ভিডিপি জেলা কমান্ডেন্ট আশীষ কুমার ভট্টাচার্য, সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো: হেলাল উদ্দিন, সদর দণি উপজেলা নির্বাহী অফিসার খালেদ মাহমুদ, এনডিসি তুষার আহমেদ, সহকারী কমিশনার সারোয়ার আহমেদ সালেহীন, সদর উপজেলা নির্বাচন অফিসার দেলোয়ার হোসেন প্রমুখ।

 

বৈঠক শেষে কুমিল্লা জেলা প্রশাসক মো: তোফাজ্জল হোসেন মিয়া সাংবাদিকদের জানান, কুমিল্লা সদর ও সদর দণি উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে আইনশৃংখলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখা ও সুষ্ঠু নির্বাচনের ল্েয শনিবার থেকে সেনাবাহিনীর ৫টি প্লাটুন, বিজিবির ৬টি প্লাটুন কাজ করবে। এছাড়াও অতিরিক্ত ১ প্লাটুন করে সেনা ও বিজিবি সদস্য রিজার্ভ থাকবে। পুলিশ সুপার টুটুল চক্রবর্তী জানান, কুমিল্লা সদর ও সদর দণি উপজেলা পরিষদ নির্বাচন সুষ্ঠু করার ল্েয সদরে ৮টি ও সদর দক্ষিণে ৫টি পুলিশের স্ট্রাইকিং ফোর্স কাজ করবে। এছাড়াও সদরে ১৮টি ও সদর দেিণ ২১টি মোবাইল টিম থাকবে। প্রতিটি ভোট কেন্দ্রে ৫ জন করে পুলিশ সদস্য নিয়োজিত থাকবে। অস্ত্রসহ ২জন করে মোট ১২জন আনসার সদস্য কাজ করবে। এদিকে জেলা নির্বাচন অফিসার রাশেদুল ইসলাম জানান, নির্বাচন গ্রহণে জেলা নির্বাচন কার্যালয় সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন করা হয়েছে। তিনি আশা প্রকাশ করে বলেন নির্বচন অবাধ ও সুষ্ঠু হবে।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।