বিষাক্ত গ্যাস ও অক্সিজেনের অভাবে কুমিল্লায় সপটিক ট্যাঙ্কে পড়ে ২ শ্রমিকের মৃত্যু

নির্মাণাধীন ভবনের সেপটিক ট্যাঙ্কে দুই শ্রমিক ঢুকে বের হলেন লাশ হয়ে। সেপটিক ট্যাঙ্কের বিষাক্ত গ্যাস ও অক্সিজেনের অভাবে তাদের মৃত্যু হয়েছে বলে মনে করা হচ্ছে। মঙ্গলবার দুপুর ১টায় কুমিল্লার চান্দিনা উপজেলা সদরের দণি চান্দিনা এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। মৃতরা হলেন ময়মনসিংহ জেলার গৌরীপুর উপজেলার বাসিন্দা নির্মাণ শ্রমিক কালা চাঁন (৩০) ও দক্ষিণ চান্দিনার বাসিন্দা সোনা মিয়ার ছেলে জব্বার মিয়া (৩৫)।
স্থানীয় বাসিন্দারা জানান, দণি চান্দিনা এলাকায় একটি নির্মাণাধীন ভবনে কাজ করেন কালা মিয়া। দুপুরে সেপটিক ট্যাঙ্কের ভেতরে গিয়ে সেন্টারিং এর বাঁশের খুঁটি সরাতে গিয়ে নিচে পড়ে যান। তাকে উদ্ধার করতে স্থানীয় বাসিন্দা জব্বার মিয়া ওই ট্যাঙ্কে প্রবেশ করেন। ফলে ট্যাঙ্কের ভিতর দুই জনেরই মৃত্যু হয়। খবর পেয়ে চান্দিনা ফায়ার সার্ভিসের একটি ইউনিট ঘটনাস্থলে পৌঁছে তাদেরকে উদ্ধার করে। উদ্ধারকৃতদের উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাদেরকে হাসপাতালে আনার পূর্বেই  মৃত হয়েছে বলে ঘোষণা করেন। চান্দিনা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) গোলাম মোর্সেদ জানান, খবর পেয়ে তাৎনিক ভাবে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। চান্দিনা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কর্তব্যরত চিকিৎসক মনিরুজ্জামান জানান, সেপটিক ট্যাঙ্কের বিষাক্ত গ্যাসের কারণে তাদের মৃত্যু হয়েছে।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।