শেরপুরে ডাকাতের সঙ্গে সংঘর্ষে ৫ পুলিশসহ আহত ১৬, আটক ১১

জেলার শেরপুরে ডাকাত দলের সঙ্গে সংঘর্ষে পাঁচ পুলিশসহ ১৬ জন আহত হয়েছেন। আহতদের মধ্যে সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার সিরাজুল হুদাও রয়েছেন। রবিবার দিবাগত রাত ১২টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। এ সময় গ্রামবাসীর সহযোগিতায় ১১ ডাকাত সদস্যকে আটক করে পুলিশ।

পুলিশ জানায়, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার সিরাজুল হুদার নেতৃত্বে মডেল থানা পুলিশের একটি বিশেষ দল শেরপুর এলাকায় অভিযান চালায়। এক পর্যায়ে ডাকাত দল পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে গুলি ছুঁড়তে শুরু করলে পুলিশও পাল্টা গুলি ছোঁড়ে। এতে সিরাজুল হুদাসহ পাঁচ পুলিশ ও ১১ ডাকাত আহত হন।
পরে গ্রামবাসীর সহায়তায় পুলিশ আন্তঃজেলা ডাকাত দলের ১১ সদস্যকে গ্রেপ্তার করে। এদের মধ্যে দুজন গুলিবিদ্ধ রয়েছে। এ সময় চারটি দেশীয় আগ্নেয়াস্ত্র, ২০ রাউন্ড গুলি ও ডাকাতি কাজে ব্যবহৃত বিভিন্ন সরঞ্জামাদি উদ্ধার করা হয়। আহত পুলিশ সদস্যরা মৌলভীবাজার হাসপাতালে প্রাথমিক চিকিৎসা নিলেও গুলিবিদ্ধ ডাকাত সদস্যরা চিকিৎসাধীন রয়েছে। ডাকাতদের নাম জানা যায়নি।

গ্রেপ্তারকৃতরা জানায়, সিলেটের গোয়ালাবাজার এলাকায় ডাকাতির জন্য শেরপুর এলাকায় তারা জড়ো হয়েছিল। মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবদুছ ছালেক জানান, গ্রেপ্তারকৃতদের বিরুদ্ধে সিলেট জেলার বিভিন্ন থানায় মামলা রয়েছে।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।