ঝালকাঠি রাজাপুরে যুবলীগ নেতা রিপন হত্যা মামলায় বিএনপির ৩ নেতার জামিন

কামরুজ্জামান সুইট, ঝালকাঠি:: ঝালকাঠির রাজাপুর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের কেন্দ্রে যুবলীগ কর্মী রিপন হত্যা মামলার আসামী বিএনপি মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী উপজেলা যুবদল সভাপতি মোঃ নাসিম উদ্দিন আকন সহ  ৩ নেতার জামিন মঞ্জুর হয়েছে। সোমবার ঝালকাঠি সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিট্রেট আদালতে আত্মসমর্পন করে  তারা জামিনের আবেদন জানালে আদালত জামিন মঞ্জুল করেন।
অন্যদিকে ঝালকাঠি আইনজীবী সমিতির কক্ষের সম্মুখে বড়ভাইয়ের সাথে দেখা করতে এসে রাজাপুর উপজেলা যুবদল সাধারন সম্পাদক লালমোন হামিদ মহিলা কলেজ প্রভাষক মোঃ মাহফুজুর রহমানের উপর যুবদল সভাপতি নাসিম আকন সমর্থক ক্যাডাররা হামলা চালিয় জুতাপেটা ও মারধর করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।
মামলা সূত্রে জানা গেছে, উপজেলা নির্বাচনের দিন বড়কৈবর্তখালী সঃ প্রাঃ বিদ্যালয় কেন্দ্রে বিএনপির ক্যাডারদের হামলায় দক্ষিন তারাবুনিয়ায় যুবলীগ কর্মী সোবাহান ব্যাপারির পুত্র রিপন ব্যাপারী (৩২) নিহত হলে বিএনপির নেতাকর্মী ও সমর্থিক ৪৩ জনের বিরুদ্ধে হত্যা মামলা দায়ের করা হয়।
বিএনপি মনোনীত রাজাপুর উপজেলা চেয়ারম্যান প্রার্থী যুবদল সভাপতি মোঃ নাসিম উদ্দিন আকন, উপজেলা বিএনপি সাধারন সম্পাদক শুক্তাগড় ইউপি চেয়ারম্যান আবুল কালাম আজাদ, সহ-সভাপতি মঠবাড়ীয়া ইউপি চেয়ারম্যান জাহিদ মাষ্টার কে উক্ত মামলার আসামী।
অন্যদিকে হামলার শিকার যুবদল সাধারন সম্পাদক প্রভাষক মাহফুজুর রহমান জানায়, সোমবার দুপুরে ঝালকাঠি বারের আইনজীবী ও তার ভাই এওয়াইএ সায়েদের সাথে দেখা করার জন্য আইনজীবী সমিতির সম্মুখে আসেন। এ সময় সেখানে উপস্থিত যুবদল সভাপতি নাসিম আকন বাহিনীর ক্যাডার ইলিয়াস সিকদারের নেতৃত্বে রাকিব, মিন্টু সহ ৭/৮জন তার উপর অতর্কিত হামলা চালিয়ে মারধর করে।
খবর পেয়ে ঝালকাঠি জেলা বিএনপির সাধারন সম্পাদক মনিরুল ইসলাম নুপুর ও সদর উপজেলা বিএনপি সভাপতি এলিন সরদার বিষয়টি সুরাহার জন্য ঘটনাস্থলে গিয়েও কাউকে খুজে পাননি। তবে রাজাপুর যুবদল সভাপতি ও সম্পাদকের মধ্যে এ বিরোধের ঘটনা আসলে ঝালকাঠি জেলা বিএনপির মধ্যে বিরাজমান কোন্দল ও গ্রুপিয়ের রেশ বলে দলীয় একটি সূত্র জানায়।
এ ব্যাপারে এ্যাডভোকেট এওয়াইএ সায়েদের সাথে আলাপ কালে জানায়, আসলে কি কারনে এ হামলা করা হয়েছে আমরা বুঝতে পারছিনা তবে নাসিম আকনই এ হামলা করিয়েছে। আবার সে হামলাকারীদের চরথাপ্পর দিয়ে ছাড়িয়ে দিয়েছে।
বিষয়টি আমরা তাৎক্ষনিক ভাবে ঝালকাঠি জেলা বিএনপির সভাপতি ব্যারি: শাহজাহান ওমরকে জানিয়েছি। তিনি আমাদের আইনগত ব্যবস্থা নেয়ার জন্য নির্দেশ দিয়েছেন। তাই এ ব্যাপারে দু/এক দিনের মধ্যেই মামলা দায়েরের প্রস্তুতী নিচ্ছি।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।