বগুড়ায় ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষ, ওসি-সাংবাদিকসহ আহত ৮

বগুড়ায় কমিটি ভেঙ্গে দেয়াকে কেন্দ্র করে বুধবার রাতে ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষ ও ককটেল বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় সদর থানার ওসিসহ আটজন আহত হয়েছেন। আহতদের মধ্যে দুইজন পুলিশ কর্মকর্তা, একজন পুলিশ কনস্টেবল ও একজন ফটো সাংবাদিক রয়েছেন।
এ ঘটনায় ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের মধ্যে টানটান উত্তেজনা বিরাজ করছে। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, অভ্যন্তরীণ কোন্দলের জের ধরে বুধবার রাত সাড়ে আটটার দিকে জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি আল রাজী জুয়েল ও সাধারণ সম্পাদক মাশরাফি হিরো গ্রুপ এবং আবদুস সাত্তার ও রবিউল ইসলাম লিটনের নেতৃত্বাধীন বিদ্রোহী গ্রুপের নেতাকর্মীরা শহরের সাতমাথায় মুখোমুখি হলে উত্তেজনা দেখা দেয়।

একপর্যায়ে দলীয় কার্যালয়ের সামনে একপক্ষ অন্য পক্ষকে লক্ষ্য করে পরপর তিন/চারটি শক্তিশালী ককটেল নিক্ষেপ করে। এতে সদর থানার ওসি ফায়জুর রহমান, এএসআই আমিরুল ইসলাম ও কনস্টেবল শাহরিয়ার, দৈনিক প্রথম আলোর ফটো সাংবাদিক সোয়েল রানাসহ কমপক্ষে আটজন আহত হয়।
মুহূর্তের মধ্যে শহরজুড়ে আতংক ছড়িয়ে পড়ে। অতিরিক্ত পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। আহতদের শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজসহ বিভিন্ন ক্লিনিকে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে।

বগুড়া সদর থানার সেকেন্ড অফিসার এসআই আনোয়ার হোসেন ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান, ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষের সময় ককটেলে সদর থানার ওসিসহ তিন পুলিশ সদস্য আহত হয়েছে।

সম্প্রতি বগুড়া সরকারি আযিযুল হক কলেজসহ চারটি কমিটি ভেঙ্গে দেয়াকে কেন্দ্র করে ছাত্রলীগের অভ্যন্তরীণ কোন্দল চরম আকার ধারণ করে। বেশ কিছূ দিন ধরে ছাত্রলীগের দুই পক্ষের মধ্যে উত্তেজনা চলছিল।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।