কুমিল্লা সঞ্চালন লাইনে বিপর্যয়: দুর্বীষহ জনজীবন লাকসামে বিদ্যুৎ বিহীন ৩৫ ঘন্টা

লাকসামে টানা ৩৫ ঘন্টা বিদ্যুত সরবরাহ বন্ধ থাকার পর আজ রোববার বিকেল সোয়া ৫টায় বিদ্যুৎ সরবরাহ শুরু হয়। শনিবার ভোর সাড়ে ৬টা থেকে কুমিল্লা জাঙ্গালিয়া বিদ্যুৎ সরবরাহ গ্রীডের ভূগর্ভস্থ ৫শ’ ফুট দীর্ঘ লাইনে ত্র“টি দেখা দিলে লাকসাম অঞ্চলে বিদ্যুৎ সরবরাহ বন্ধ হয়ে যায়। এতে লাকসামের প্রায় ২০ হাজার আবাসিক, বাণিজ্যিক ও শিল্প গ্রাহকেরা চরম দুর্ভোগে পড়েন।

 

বিশেষ করে হাসপাতাল-ক্লিনিকের জরুরী অপারেশনসহ রোগী সাধারণের চিকিৎসা সেবা মারাত্মক ভাবে ব্যহত হয়। বাসাবাড়ির ফ্রিজে রক্ষিত খাবার নষ্টসহ গরমে কষ্টপায় লোকজন। দীর্ঘ সময় ধরে বিদ্যুৎ না থাকায় প্রচন্ড তাপদাহের কারনে অধিকাংশ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ করে দেয়ার খবর পাওয়া গেছে। বিদ্যুৎ বিপর্যয়ের পর থেকে গত দু’দিন জনরোষের ভয়ে দৌলতগঞ্জ বিদ্যুৎ অফিসের গেইটে তালা দিয়ে রাখে।
লাকসাম দৌলতগঞ্জ বিদ্যুৎ অফিসের নির্বাহী প্রকৌশলী মোস্তাফিজুর রহমান জানান, কুমিল্লা জাঙ্গালিয়া বিদ্যুৎ সরবরাহ গ্রীড থেকে ৪২ কিলোমিটার দীর্ঘ লাইনে অধিকাংশ ত্রুটি জনিত কারনে লাকসাম বিদ্যুত সরবরাহ কেন্দ্রের ৩৩কেভি লাইনটিতে সমস্যা দেখা দেয়ায় বিদ্যুৎ সরবরাহ বন্ধ করা হয়।

 

এরপর বিজয়পুর এলাকা দিয়ে আন্ডার গ্রাউন্ডে স্থাপিত ৫০০ ফিট ক্যাবল ত্র“টির কারনে ৩৩ কেভি সরবরাহ লাইনে এ ভয়াবহ বিপর্যয় ঘটে।

 

গত ২দিন যাবত বিদ্যুৎ বিভাগের তিনটি ডিভিশেনের উদ্ধতন কর্মকর্তা কর্মচারীরা রাতদিন পরিশ্রম করে লাইনটি সচল করার জন্য কাজ করছেন। অবশেষে আজ ল রোববার বিকেলে সোয়া ৫টায় লাইনটি চালু হয়।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।