লাকসামে পিডিবির কর্মকর্তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের দাবী এলাকাবাসীর

বাংলাদেশ বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ডের লাকসাম দৌলতগঞ্জ বিক্রয় ও বিতরণ কার্যালয়ের সহকারী প্রকৌশলী দেলোয়ার হোসেনসহ অন্যান্য কর্মকর্তাদেরর দুর্নীতির বিষয়ে ব্যবস্থা গ্রহণের দাবী জানিয়েছেন এলাকাবাসী। তাদের দুর্নীতি চিত্র তুলে ধরে গত কয়েকদিন ধরে মিডিয়ায় সংবাদ প্রকাশ হওয়ায় তড়িৎ ব্যবস্থা গ্রহণের দাবী জানাচ্ছে লাকসামের সর্বস্তরের জনসাধারণ।

 

অন্যদিকে জমছে অভিযোগের পাহাড়। ওই কর্মকর্তার বিরুদ্ধে প্রমাণাদিসহ বাংলাদেশ বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ডের চেয়ারম্যান ও তদন্ত শৃঙ্খলা পরিদপ্তরের পরিচালকসহ বিভিন্ন দপ্তরে ইতিমধ্যে পৃথক অভিযোগ করেছেন, মোঃ জাহাঙ্গীর আলম, মোঃ আবদুল করিম, ফরহাদ হোসেন।

 

ফরহাদ হোসেনের দায়েরকৃত অপর অভিযোগে জানা যায়, লাকসাম উত্তর বাজার মমতাময়ী হাসপাতালের সামনে ৪টি এইচটি পিলার দ্বারা ২০০ কেভিএ ট্রান্সফরমার স্থাপন করে, যা ডিপোজিট ওয়ার্কের কথা বলে প্রায় ৫ লাখ টাকা হাতিয়ে নেন সহকারী প্রকৌশলী দেলোয়ার হোসেন। এ কাজের কোন নকশা অনুমোদিত নয়।

 

এছাড়া, বাটিয়াভিটা এলাকায় স্থাপিত হিসাব নং এ/২০৭৪৪, যার বই নং ০৯, ওয়ার্ক অর্ডার নং ২৭৮৭ এবং হিসাব নং ই/৫১১৭, বই নং ০৯, ওয়ার্ক অর্ডার নং ২৭৩৩ এর পল্ট্রি ফার্মে অনুমোদনের পূর্বে মিটার স্থাপন করা হয়। মিটার অনুমোদন হওয়ার পর বিল করার পূর্বে মিটারগুলো ফেলে দিয়ে নতুন মিটার স্থাপন এবং বিল করা হয়। ফেলে দেয়া দু’টি মিটার যথাক্রমে প্রায় ৯৫৮১ ও ১০৮৭০ ইউনিট জমা ছিল। যার মূল্য বাবত প্রায় ১ লাখ ৬০ হাজার টাকা রাজস্ব আত্মসাৎ করেন ওই কর্মকর্তা। সঠিক তদন্তে আরো অনিয়ম বেরিয়ে আসবে বলে অভিযোগে দাবি করা হয়।

 

অপরদিকে গত ক’দিন ধারাবাহিকভাবে পত্রিকায় প্রকাশিত সংবাদে বিদ্যুৎ বিভাগের ব্যাপক অনিয়ম ও দুর্নীতির চিত্র উঠে আসায় বিভিন্ন মহলে চাঞ্চল্য সৃষ্টি হয়েছে।

 

এ বিষয়ে বরাবরের মতো অভিযোগ অস্বিকার করেন, পিডিবি লাকসাম দৌলতগঞ্জ কার্যালয়ের সহকারী প্রকৌশলী দেলোয়ার হোসেন।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।