লাকসামে স্কুল ছাত্রীকে ধর্ষনের চেষ্টায় অভিযোগের কয়েক ঘন্টার মধ্যে অভিযুক্ত গ্রেপ্তার - খবর তরঙ্গ
শিরোনাম :
তিনি কথা রাখলেন

লাকসামে স্কুল ছাত্রীকে ধর্ষনের চেষ্টায় অভিযোগের কয়েক ঘন্টার মধ্যে অভিযুক্ত গ্রেপ্তার



নিজস্ব প্রতিনিধি, (খবর তরঙ্গ ডটকম)

কুমিল্লার লাকসামে তোরাব আলী উচ্চ বিদ্যালয়ের ৭ম শ্রেনীর ছাত্রীকে(১৩) ধর্ষন চেষ্টার অভিযোগে রিপন হোসেন(৩৪) নামের এক যুবক কে গ্রেপ্তার করেছে থানা পুলিশ। গত ৫ই সেপ্টেম্বর রাত ১০টায় দিকে উপজেলা মুদাফরগঞ্জ (দঃ) ইউপি’র কাগৈয়া গুচ্ছ গ্রামে এ ঘটনাটি ঘটে।

 

ঘটনার ৪দিন পর গতকাল রবিবার  রাত ১১টায় লাকসাম থানার অফিসার ইনচার্জ মনোজ কুমার দে স্থানীয় সাংবাদিকেদের মাধ্যমে ধর্ষন চেষ্টার একটি মৌখিক অভিযোগ পান। ঘটনা বিস্তারিত শুনে তিনি ওই সাংবাদিকদের কথা দেন যে আপনারা এ ব্যাপরে সকালেই ভাল কিছু জানতে পারবেন। তিনি কথা রাখলেন কয়েক ঘন্টার মধ্যে স্কুল ছাত্রী ধর্ষন চেষ্টার অভিযুক্ত রিপন হোসেনকে গ্রেপ্তার করে।

 

অভিযোগ ও স্থানীয় সুত্রে জানা যায় গত ৫ই সেপ্টেম্বর বুধবার সন্ধায় উপজেলা মুদাফরগঞ্জ (দঃ) ইউপি’র কাগৈয়া গুচ্চ গ্রামে ডিসি’র আগমন উপলক্ষে প্রস্তুতি সভা আয়োজন করা হয়। স্কুল ছাত্রী’র বাবা-মা মেয়েকে ঘরে একা রেখে ওই অনুষ্ঠানে জান। এসময় পাশের প্লটের খলিলুর রহমানের ছেলে রিপন হোসেন ওই ছাত্রী’র নীজ ঘরে ঘুমান্ত অবস্থায় একা পেয়ে ঘরে ডুকে দরজা বন্ধ করে ধর্ষনের চেষ্টা চালালে স্কুল ছাত্রী অত্মচিৎকারে শুনে পাশের প্লটের জসিম, তাসলিমা বেগম বিষয়টি সভাস্থলে গিয়ে তার বাবা-মায়ের কাছে জানায়। তখন মা-বাবা সহ আশপাশের লোক জন ছুটে আসতে দেখে রিপন হোসেন দৌড়ে পালিয়ে যায়। পরে ঘটনাটি গুচ্চ গ্রামে জানাজানি হলে স্থানীয় মেম্বার বিষয়টিকে মিমাংসা করার কথা বলেন। কিন্তু দীর্ঘ ৪দিন পরও স্থানীয় ভাবে কোন বিচার হয়নি। পরে লাকসাম থানার হস্তক্ষেপে ও ছাত্রী’র মা বিচার না পাওয়া নীজে বাদী হয়ে লাকসাম থানায় অভিযোগ করেন। অভিযোগের কয়েক ঘন্টার মধ্যে রিপন হোসেন কে লাকসাম থানা পুলিশ গ্রেপ্তার করে। আজ সোমবার তাকে কুমিল্লা আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।

 

স্থানীয় ইউপি সদস্য ফজজুল আলম মিয়াজী বলেন, ওইদিন স্কুল ছাত্রী ধর্ষনের চেষ্টার বিষয়টি তার মা আমাকে জানালে আমি স্থানীয় লোকজনকে নিয়ে তা মিমাংসা করে দিব বলে আশ্বাস দেই। ওইদিনের পর থেকে আমার এলকায় বিশেষ কাজ থাকার কারনে বিষয়টি সমধা করতে পারিনি। এরই মধ্যে পুলিশ খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে এসে বিষয়টি তদন্ত করেন। গতকাল সোমবার রিপন হোসেনকে পুলিশ গ্রেপ্তার করে থানায় নিয়ে যায়।

 

লাকসাম থানা পুলিশের অফিসার ইর্নচার্জ মনোজ কুমার দে বলেন  স্কুল ছাত্রী’র ধর্ষনের চেষ্টার একটি মৌখিক অভিযোগের বিত্তিতে আমি নিজে ঘটনাস্থলে গিয়ে স্থানীয় লোকজন, এলাকার সদ্দার, ওই স্কুল ছাত্রী ও তার বাবা-মা’র সাথে কথা বলে ঘটনাটি সত্য বলে মনে হয়ে। পরে ওই স্কুল ছাত্রী’র মা নিজে বাদী হয়ে ধর্ষন চেষ্টার অভিযোগে রিপন হোসেনের নামে থানায় অভিযোগ দিলে ওইদিনেই কয়েক ঘন্টার মধ্যে অভিযান চালিয়ে অভিযুক্ত আসামিকে গ্রেপ্তার করা হয়।


এ সম্পর্কিত আরো খবর

কুমিল্লা এর অন্যান্য খবরসমূহ
জেলা এর অন্যান্য খবরসমূহ
লাকসাম এর অন্যান্য খবরসমূহ
পূর্বের সংবাদ