জাবিতে সহপাঠীদের বেধড়ক পেটালো ছাত্রলীগ কর্মীরা

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে সহপাঠীদের বেধড়ক পিটিয়ে আহত করেছে বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ফয়সাল হোসেনের অনুসারীরা।

রোববার রাতে বিশ্ববিদ্যালয় মীর মশাররফ হোসেন হলের ১০১ নম্বর কক্ষে এ ঘটনা ঘটে।

প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, একজন বৃদ্ধকে সাহায্যের জন্য অর্থনীতি বিভাগের ৪২তম ব্যাচের শিক্ষার্থী ও ছাত্রলীগ কর্মী জাবেদ সজল তার সহপাঠী ও প্রাণ রসায়ন ও অনুপ্রাণ বিজ্ঞান বিভাগের একই ব্যাচের শিক্ষার্থী আলমগীর, ইয়াসির ও মাসুদকে ডেকে পাঠান।

এ সময় তারা সজলের ডাকে সাড়া না দেয়ায় সজল ও নগর ও অঞ্চল পরিকল্পনা বিভাগের জামিলের নেতৃত্বে হলের ছাত্রলীগের কর্মীরা তাদের ক্রিকেট ব্যাট দিয়ে বেধড়ক পেটায়। এতে বিভিন্ন জায়গায় ক্ষতের সৃষ্টি হয়।

পরে হলের সিনিয়র শিক্ষার্থীরা এসে আহতদের উদ্ধার করে বিশ্ববিদ্যালয়ের মেডিক্যাল সেন্টারে নিয়ে যায়। এ সময় খোঁজ নিতে আসা চতুর্থ বর্ষের শিক্ষার্থীদের সাথেও সজল খারাপ করে।

অভিযোগ রয়েছে, সজল প্রায়ই রাজনৈতিক প্রভাব খাটিয়ে সহপাঠীদের সাথে দ্যুর্ববহার করেন। তার বিরুদ্ধে এর আগেও মারধরের অভিযোগ থাকলেও বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন ও ছাত্রলীগ কোনো ব্যবস্থা নেয়নি।

মারধর করার কথা স্বীকার করে জাবেদ সজল বলেন, টাকা তোলার জন্য তাদের ডাকতে গেলে তারা আমার সাথে খারাপ ব্যবহার করে এবং আমাকে ধাক্কা দিয়ে কক্ষ থেকে বের করে দেয়। পরে আমি তাদের কয়েকটি থাপ্পড় দিই।

এ বিষয়ে জাবি প্রক্টর তপন কুমার সাহা বলেন, “বিষয়টি হল প্রশাসনের অধীনে বিধায় প্রক্টোরিয়াল বডির এখানে কিছু করার নেই । তবে এ বিষয়ে লিখিত কোনো অভিযোগ হলে আমরা ব্যবস্থা নেব।”

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।