ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ৪৮তম সমাবর্তন অনুষ্ঠিত

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ৪৮তম সমাবর্তন সোমবার বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় খেলার মাঠে অনুষ্ঠিত হয়েছে। এতে আট হাজার ৩১২ শিক্ষার্থী অংশ নেন।

সমাবর্তন বক্তা হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উপস্থিত ছিলেন ইউরোপিয়ান অরগানাইজেশন ফর নিউকিয়ার রিসার্চের (সার্ন) মহাপরিচালক অধ্যাপক রোলফ হুয়ের। সমাবর্তনে তাকে ডক্টর অব সায়েন্স প্রদান করা হয়। এছাড়াও ৩৩জন গ্র্যাজুয়েটকে সমাবর্তনে স্বর্ণপদক প্রদান করা হয়।
ডিগ্রি প্রদান শেষে বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষা ও দেশের ইতিহাসের বিভিন্ন পর্যায়ের আন্দোলন-সংগ্রামে ছাত্রদের গৌরবোজ্জ্বল ভূমিকার উল্লেখ করে সংক্ষিপ্ত বক্তৃতা দেন।
অধ্যাপক রোলফ হুয়ের ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক অসাধারণ ছাত্র ও বিজ্ঞানী সত্যেন বোসের অবদানের কথা উল্লেখ করে বলেন, “সত্যেন বোস অসাধারণ এক লোক ছিলেন। তিনি নোবেল পাওয়ার যোগ্য ছিলেন । কিন্তু কেন তা পেলেন না তার সুস্পষ্ট বক্তব্য দিতে পারবো না। যদিও তিনি নোবেল পাননি, তিনি তার কাজ দিয়ে নোবেলের চেয়ে বেশি সমাদৃত হয়েছেন।”
তিনি বলেন, “শিক্ষা ও গবেষণা যেমন নিজেকে এগিয়ে নিয়ে যায় তেমনি আবার জাতিকেও এগিয়ে নিয়ে যায়। কোনো নতুন কিছু সৃষ্টি করতে গেলে চাই জিজ্ঞাসু মনোবৃত্তির প্রয়োজন।শিক্ষাই চাবি। এটা একা কিছু করার বিষয় নয়। সবাই মিলে সমন্বয় করে চলার বিষয়।” বিজ্ঞান নির্ভর এই যুগে সামনে এগিয়ে যাওয়ার আহ্বান জানিয়ে তিনি তার বক্তব্য শেষ করেন।
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ৪৮তম সমাবর্তন অনুষ্ঠানে সভাপতির বক্তব্যে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ বলেন, “বিশ্বায়নের যুগে দিন দিন প্রতিযোগিতা বাড়ছে। তাই জ্ঞান ও বিজ্ঞানের প্রতিটি শাখায় বিচরণ করতে শিক্ষার্থীদের যোগ্য হতে হবে। ক্যাম্পাসে সুষ্ঠু শিক্ষার পরিবেশ বজায় রাখতে ছাত্র সংগঠনগুলোকে কাজ করতে হবে। তাদের স্বাধীনতার চেতনায় উজ্জীবিত হয়ে কাজ করতে হবে।”
অনুষ্ঠানে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি প্রফেসর আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক ও প্রো-ভিসি প্রফেসর নাসরিন আহমদসহ বিভিন্ন অনুষদ ও বিভাগের ডিন ও শিক্ষকরা উপস্থিতি ছিলেন।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।