খাদ্যের মাধ্যমে স্মৃতিশক্তি বাড়িয়ে তুলার উপায়

ইদানিংকোথায় কী রাখছেন মনে থাকছে না? খুঁজে পাচ্ছেন না চশমার খাপ, চাবির গোছা, মোবাইল সেট? এখানে সেখানে ফেলে আসছেন ভুল করে এটা-সেটা? মনে থাকছে না পরিচিত মানুষেরনাম? খুব ভুলো মন?

 

ভুলে যাওয়াটা খুবই সাধারণ প্রক্রিয়া। সময়ের সাথে সাথে মানুষের স্মৃতিদুর্বল হয়ে যায়। তবে সময়ের এই প্রভাবকে একটু দীর্ঘায়িত করা যায়। হার্ট, ফুসফুস, পেশীর যত্নের সাথে সাথে সুস্থ থাকতে হলে খেয়াল রাখতে হবে আপনারমস্তিষ্কের দিকেও। এখানে এমন ৫ টি খাদ্যের কথা উল্লেখ করা হলো যা আপনারস্মৃতিশক্তি বাড়িয়ে তুলতে সাহায্য করবে।
১. তেলযুক্ত মাছ:
যে সব মাছেতেল বেশি আছে, সেইসব মাছ বেশি করে খান। মাছের তেলে আছে EPA (eicosapentaenoic acid) ও DHA (docosahexaenoic acid) । এগুলোর স্বল্পতাস্মৃতির জন্য মারাত্মক ক্ষতিকর।
২. টমেটো:
টমেটোতে Lycopene নামে একটি শক্তিশালী অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট রয়েছে যা ব্রেনের ক্ষতিগ্রস্ত কোষগুলোর জন্য উপকারি।
৩. কুমড়ার বীজ:
প্রতিদিন একমুঠো মিষ্টিকুমড়ার বীজ জিংকের চাহিদা মেটাতে পারে। যা স্মৃতি ও চিন্তাশক্তি বাড়াতে অত্যাবশ্যক।
৪. ব্রোকলি:
ব্রোকলিতে রয়েছে প্রচুর পরিমাণ ‘ভিটামিন কে’। যা মেধা ও স্মৃতি বর্ধক।
৫. বাদাম:
American Journal of Epidemiology এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে ‘ভিটামিন ই’ স্মৃতিশক্তিবাড়াতে সাহায্য করে। আর বাদাম ‘ভিটামিন ই’ এর একটি বড় উৎস।
স্মৃতিশক্তিবৃদ্ধিকারক এইসব খাবার গ্রহণের পাশাপাশি নিয়মিত স্মৃতিশক্তি বৃদ্ধিরব্যায়াম করা যেতে পারে। আর অবশ্যই প্রয়োজনে চিকিৎসকের পরামর্শ নেওয়াটাওজরুরি।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।