নাঙ্গলকোটে পরিবারের চাপে বাল্য বয়সে বিয়ের পিড়িতে ৮ম শ্রেণীর ছাত্রী ফেরদাউস

কুমিল্লার নাঙ্গলকোটে পরিবারের চাপে পড়ে এক স্কুল ছাত্রীকে বাল্য বয়সে বিয়ের পিড়িতে বসতে হচ্ছে। ওই স্কুল ছাত্রীর নাম মোসাঃ ফেরদাউস আক্তার শিমু (১৪)। জানা যায়, সে উপজেলার ধাতীশ্বর উচ্চ বিদ্যালয়ের ৮ম শ্রেণীর ছাত্রী এবং বাঘমারা গ্রামের ডাঃ জহিরুল ইসলামের মেয়ে। আরও জানা যায়, গত কয়েক দিন পূর্বে ওই স্কুল ছাত্রীর পিতা একই উপজেলার বাইয়ারা গ্রামের জনৈক ছেলের সাথে তার বিয়ের দিন ধার্য করে। আগামী শুক্রবার তার বিয়ে অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে।  এ ব্যাপারে স্কুল ছাত্রীর পিতা জহিরুল ইসলামের কাছে জানতে চাইলে তিনি জানায়, আমাদের মেয়ে আমরা বিয়ে দেব। তাতে কার কি আসে যায়? এটা আমাদের পারিবারিক ব্যাপার।

এ ব্যাপারে নাঙ্গলকোট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা  জানায়, এত অল্প বয়সে বিয়ে দেওয়া আইনত দন্ডনীয় অপরাধ। ঘটনাটি আমার কানে এসেছে। আমি এর বিরুদ্ধে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করব।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।