মানবাধিকার সংগঠন অধিকার’র সেক্রেটারি আদিলুর রহমান খানকে তার বাসা থেকে গ্রেফতার

সাদা পোশাকধারী ডিবি পুলিশ মানবাধিকার সংগঠন অধিকার’র সেক্রেটারি আদিলুর রহমান খানকে তার বাসা থেকে গ্রেফতার করেছে। শনিবার রাত সাড়ে দশটায় তার গুলশানের বাসা থেকে তাকে ধরে নিযে যাওয়া হয়। অধিকার উপদেষ্টা বিশিষ্ট কলামিস্ট ও কবি ফরহাদ মজহার রাতে সংবাদ মাধ্যমকে এ তথ্য নিশ্চিত করেন। আদিলুর রহমানকে কোথায নেয়া হয়েছে, তা নিশ্চিত হতে পারেননি বলেও জানান তিনি।

পুলিশের গোয়েন্দা বিভাগও আদিলুর রহমান খানকে আটকের বিষয়টি কাছে স্বীকার করেছে।পুলিশ বলছে, গত ৫ এবং ৬ মে ঢাকার মতিঝিলে হেফাজতে ইসলামের সমাবেশ এবং সেখানে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর অভিযানকে ঘিরে অসত্য তথ্য প্রচারের অভিযোগে  আদিলুর রহমান খানকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

তাকে তথ্যপ্রযুক্তি আইনে তাকে গ্রেফতার করা হয় বলে পুলিশ জানিয়েছে।

গোয়েন্দা পুলিশের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার মাসুদুর রহমান জানিয়েছেন, গত মে মাসে মতিঝিলের শাপলা চত্বরে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর অভিযান নিয়ে অসত্য এবং বিভ্রান্তিমূলক তথ্য প্রচারের অভিযোগে গোয়েন্দা পুলিশ তাকে গ্রেফতার করে।

আদিলুর রহমান খানের স্ত্রী সায়রা রহমান খান বলেছেন, তাদের গুলশানের বাসার সামনে থেকে সাদা পোশাকের একদল গোয়েন্দা পুলিশ তাকে গ্রেফতার করে নিয়ে যায়।

এর আগে ৫ মে রাতে হেফাজতে ইসলামের সমাবেশে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর অভিযান নিয়ে একটি প্রতিবেদন তৈরি করেছিল অধিকার। পুলিশ বলছে, সেই প্রতিবেদনটিতে অসত্য তথ্য উপস্থাপন করা হয়েছিল।

মিসেস খান বললেন, ওই প্রতিবেদনটি সম্পর্কে বিস্তারিত জানাতে তথ্য মন্ত্রণালয় থেকে তাদেরকে বলা হয়েছিল, কিন্তু বিষয়টি তদন্তে কোনো স্বাধীন তদন্ত কমিশন না থাকায় তারা সেটি দিতে অস্বীকৃতি জানান।

আদিলুর রহমান খানকে গ্রেফতারের সুনির্দিষ্ট কোনো কারণ পুলিশ তাদের জানায়নি বলে জানান মিসেস রহমান।

অধিকার’র ওপর আগে থেকেই সরকার নাখোশ বলে জানা যায়। বিশেষ করে বিভিন্ন বিষযে অধিকারের মাসিক কিংবা ত্রৈমাসিক প্রতিবেদন সরকারের জন্য নেতিবাচক হয় বলে মনে করে সরকারি মহল।

জানা যায়, মানবাধিকারের এই সংগঠনকে যেসব বিদেশি সংস্থা সাহায্য দিয়ে থাকে, তাদের কাছে সরকার একাধিকবার অভিযোগ করেছিল। এই পরিপ্রেক্ষিতে বেশ কিছু দিন অধিকার’র জন্য দাতাদের সাহায্য বন্ধ ছিল।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।