পারভেজ মুশারফ গ্রেপ্তার

পাকিস্তানের সাবেক সেনাশাসক জেনারেল পারভেজ মুশাররফকে গ্রেফতার করেছে নিরাপত্তা বাহিনী। শুক্রবার সকালে রাজধানী ইসলামাবাদের উপকণ্ঠে অবস্থিত চাক শাহজাদের খামারবাড়ি থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়।  এরআগে বৃহস্পতিবার আদালত মুশাররফের জামিন আবেদন বাতিল করে গ্রেফতারের আদেশ দিলে তিনি তার ব্যক্তিগত নিরাপত্তা রক্ষীদের সহায়তায় পালিয়ে যান। এরপর নিজের খামার বাড়ি চাক শাহজাদে অবস্থান করলে তাকে গৃহবন্দি করা হয়।

পাকিস্তানি সংবাদ মাধ্যমগুলো জানায়, পাকিস্তান রেঞ্জার্স এবং পুলিশের বিশেষ বাহিনী শুক্রবার সকালে অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেফতার করে।  এরপর মুশাররফকে আদালতে নিয়ে যাওয়া হয়। এ সময় আদালত তার সঙ্গে দাগি আসামির মতো আচরণ করছে বলে অভিযোগ করেন মুশাররফ।

প্রকাশিত ভিডিও ফুটেজে দেখা যায় নিরাপত্তা কর্মী দ্বারা পরিবেষ্ঠিত মুশাররফকে একটি গাড়ি ওঠানো হচ্ছে।

বৃহস্পতিবার রাতে পাকিস্তানি পত্রিকা ডন জানায়, মুশাররফের চক শাহজাদের বাসভবনটিকে সাবজেল ঘোষণার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। প্রেসিডেন্ট আসিফ আলী খান জারদারির সঙ্গে অন্তর্বর্তীকালীন তত্ত্বাবধায়ক সরকার প্রধান ও আইনমন্ত্রীর বৈঠকে এই সিদ্ধান্ত হয়েছে।

ক্ষমতায় থাকাকালে ২০০৭ সালের মার্চে শীর্ষস্থানীয় বিচারপতিদের গৃহবন্দী করার পদক্ষেপ নেয়ার দায়ে ইসলামাবাদ হাইকোর্ট তাকে গ্রেপ্তারের এই নির্দেশ দেন। ২০০৭ সালে জরুরি অবস্থা জারির পর ৬০ জনের বেশি বিচারককে গৃহবন্দী করার পদক্ষেপের বিরুদ্ধে করা মামলায় জামিনের মেয়াদ বাড়ানোর শুনানির জন্য বৃহস্পতিবার আদালতে হাজির হন মোশাররফ।

প্রায় পাঁচবছর স্বেচ্ছা নির্বাসনে লন্ডন ও দুবাইয়ে কাটিয়ে গত ২৪ মার্চ পাকিস্তানে ফিরে আসেন মুশাররফ। আগামী ১১ মে পাকিস্তানের সাধারণ নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতার পরিকল্পনা ছিল তার। কিন্তু আদালতের নিষেধাজ্ঞার জন্য শেষ পর্যন্ত ভোটে লড়তে পারছেন না তিনি। চারটি আসনে মনোনয়নপত্র জমাও দিয়েছিলেন মুশাররফ। তবে সবক’টিতেই তার মনোনয়নপত্র বাতিল হয়েছে। সূত্র: জিও টিভি, ডন, রয়টার্স।


সম্পাদনা: শামীম ইবনে মাজহার,নিউজরুম এডিটর

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।