জাতিসংঘ শান্তিরক্ষী বাহিনীর ৭ সদস্য নিহত: দারফুরে বন্দুকযুদ্ধ

সুদানের দারফুরে বন্দুকযুদ্ধে জাতিসংঘ শান্তিরক্ষী বাহিনীর সাত সদস্য নিহত হয়েছেন। এ হামলায় আহত হয়েছেন আরো ১৭ জন। দারফুরের খোর অ্যাবেচি শহরের ১৫ মাইল পশ্চিমে শনিবার অজ্ঞাত বন্দুকধারী জাতিসংঘের শান্তিরক্ষী বাহিনীর একটি দলের ওপর হামলা চালালে এ হতাহতের ঘটনা ঘটে। দারফুরে আন্তর্জাতিক বাহিনী দায়িত্ব নেয়ার পর এটাই সবচেয়ে রক্তক্ষয়ী হামলা।

জাতিসংঘ শান্তিরক্ষী বাহিনীর মুখপাত্র চেরিস সিসমানিক জানান, হামলাকারীরা ভারি মেশিন গান ও রকেট গ্রেনেট নিয়ে হামলা চালিয়েছে।

আহতদের মধ্যে দুইজন নারী পুলিশ সদস্য রয়েছে বলে শান্তিরক্ষী বাহিনী এক বিবৃতিতে জানিয়েছে।

তাৎক্ষণিকভাবে কোনো দল এ হামলায় দায় স্বীকার করেনি। চেরিস হতাহতদের জাতীয়তা ও পরিচয় প্রকাশ করতে অস্বীকৃতি জানিয়েছে।

২০০৮ সালে দারফুরে আন্তর্জাতিক সেনারা দায়িত্ব নেয়ার পর থেকেই তাদের ওপর জঙ্গি হামলার ঘটনা ঘটছে। চলতি বছরের এপ্রিলে জঙ্গি হামলায় এক নাইজেরিয়ার শান্তিরক্ষী বাহিনীর সদস্য নিহত হওয়ার পর এই প্রথম সেখানে জঙ্গি হামলার ঘটনা ঘটলো।

দারফুরের বেসামরিক মানুষের নিরাপত্তার জন্য সেখানে দ্য জয়েন্ট আফ্রিকান ইউনিয়ন ও জাতিসংঘ শান্তিরক্ষী বাহিনীর সমন্বয়ে যৌথবাহিনী গড়ে তোলা হয়েছে।

ওই বাহিনীতে এক লাখ ৬৫ হাজার সৈন্য ও সামরিক পর্যবেক্ষক এবং পাঁচ হাজার আন্তর্জাতিক পুলিশ রয়েছে। দারফুরে সুদান সরকারের সঙ্গে বিদ্রোহীদের সংঘাতে গত ১০ বছরে তিন লাখেরও বেশি মানুষ নিহত হয়েছে। সূত্র: দ্য গার্ডিয়ান


সম্পাদনা: শামীম ইবনে মাজহার,নিউজরুম এডিটর

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।