চিনি থেকে সাবধান!

চিনি যেকোনো মানুষকেই অনেক তাড়াতাড়ি আসক্ত করে ফেলে। কিন্তু এই আসক্তকর জিনিসটা যে কি পরিমাণে ক্ষতিকর হতে পারে তা হয়তো অনেকেরই জানা নেই। তার প্রথম কারণ চিনি আমাদের স্বাস্থ্যের জন্য অত্যন্ত ক্ষতিকর। আমাদের স্বাস্থ্য যদি একবার খারাপ হয়ে যায় তাহলে কোনো কাজই করতে ভালো লাগবে না।

চিনি ছেড়ে দেয়ার ছয়টি কারণ-

১. চিনি আপনার ত্বকে বয়সের ছাপ আনে: হয়ত এটা আপনার কাছে আশ্চর্য মনে হবে যে চিনি কিভাবে আমাদের মুখে বয়সের ছাপ আনবে? কিন্তু বাস্তবে এটিই সত্য কারণ চিনি আমাদের শরীরের হরমোনকে ব্যাহত করে ও সেই সঙ্গে শরীরের অন্যান্য মৌলগুলোকে উৎসাহিত করে যা ত্বকে বয়সের ছাপ আনার জন্য দায়ী। তাই সুন্দর ত্বকের জন্য আজই চিনি ছেড়ে দিন।

২. বেশি আসক্তিকর: চিনি ছেড়ে দেয়ার আরেকটি কারণ হলো এটি খুবই বেশি আসক্তিকর। একটি নতুন গবেষণায় বলা হয়েছে, চিনি কোকেনের চেয়ে আটগুণ বেশি আসক্তিকর। তাই আপনি যত বেশি চিনি খাবেন তত বেশি তা খেতে মন চাবে। এর ফলে আপনার স্বাস্থ্য আরো বেশি খারাপ হতে থাকবে।

৩. ওজন বাড়ায়: বেশি পরিমাণ চিনি খেলে আপনার শরীরের ওজন বেড়ে যাবে। যদি আপনি ডায়েটে থাকেন ও সেই সঙ্গে ওজনও কমাতে চান তাহলে আলাদা করে চিনি খাবেন না। কারণ, আপনি যখন কোনো শর্করা জাতীয় খাবার খান তখন এমনিতেই আপনার শরীরে স্বাভাবিকভাবে চিনি প্রবেশ করছে। তাই অযথা বাড়তি চিনি খেয়ে কেন আপনার শরীরের ওজন বাড়াবেন? ৪. মনকে আন্দোলিত করে:  চিনি অনেক সময় মানুষের মনকেও আন্দোলিত করতে পারে। যখন আমরা চিনি খাই তখন আমাদের রক্তে শর্করার পরিমাণ হঠাৎ কমে ও বেড়ে যায়। যা আমাদের বিপাকক্রিয়া, মন ও স্বাস্থ্যের জন্য অত্যন্ত ক্ষতিকর।

৫. ক্ষুধা বাড়ায়: আপনি যত বেশি চিনি খাবেন তত বেশি ক্ষুধার্ত অনুভব করবেন। অনেক সময়  খেয়াল করবেন আপনি যখন সকালের নাস্তা করেন তারপরেই আবার খিদা লাগে। তার কারণ হলো আপনি সকালে বেশি পরিমাণে চিনি খেয়ে ফেলেছেন, যা কিনা আপনার শরীরের জন্য অপ্রয়োজনীয়ও।

৬. ইমিউন সিস্টেমকে শুষে নেয়: চিনি আমাদের ইমিউন সিস্টেমকে শুষে নেয় যার ফলে আমাদের দেহে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কমে যায় এবং আমাদের শরীরে দ্রুত আসুখ বাধে। যেমন- ঠাণ্ডা, ফ্লু ইত্যাদি। অনেক গবেষণায় দেখা গেছে যাদের শরীরে পি.এইচ এর পরিমাণ কম তাদের দেহে ক্যান্সার খুবি দ্রুত আক্রমণ করে তাই আমাদের ক্যান্সার প্রতিরোধ করার জন্য শরীরের ইমিউন সিস্টেমকে বাড়াতে হবে। আর তার জন্য যে কাজটি করা দরকার তা হলো চিনি ছেড়ে দেয়া।

আমরা অনেকেই জানি যে বেশি পরিমাণে চিনি শরীরের জন্য ক্ষতিকর। তাই শরীরটাকে ঠিক রাখার জন্য চিনি ছেড়ে দিলে খুব একটা বেশি সমস্যা হবে না।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।