বিশ্ব গণিত প্রতিযোগিতায় বাংলাদেশী শিক্ষার্থীর কৃতিত্ব

বাংলাদেশে তুর্কি স্কুলের শিক্ষার্থী রাগিব মোস্তফা বিশ্ব গণিত প্রতিযোগিতায় প্রথম হয়েছে।

বাংলাদেশের ইন্টারন্যাশনাল হোপ টার্কিশ স্কুলের দশম শ্রেণীর ছাত্র মোস্তফা ১১০টি দেশের ৯০ লাখ শিক্ষার্থীর অংশগ্রহণে অনুষ্ঠিত এডেক্সেল আইজিসিএসই পরীক্ষায় সর্বোচ্চ নম্বর পেয়ে প্রথম হয়ে বাংলাদেশে নিযুক্ত বৃটিশ রাষ্ট্রদূতের হাত থেকে পুরস্কার গ্রহণ করেছে।

বৃটিশ কাউন্সিল বাংলাদেশের আঞ্চলিক পরিচালক ব্রেডান ম্যাকশেরি জানান, জনবহুল দেশগুলোতে পরিচালিত টার্কিশ স্কুল বাংলাদেশে আন্তর্জাতিক স্কুলগুলোর মধ্যে অন্যতম সেরা স্কুল। বেসরকারি বার্তা সংস্থা চিহান নিউজ এজেন্সির বরাত দিয়ে তিনি বলেন, “পরীক্ষায় এই স্কুলের শিক্ষার্থীরাই সবচেয়ে ভালো ফল করে।”

এডেক্সেল আইজিসিএসই পরীক্ষায় বাংলাদেশের টার্কিশ স্কুলের শিক্ষার্থীরা তাৎপর্যপূর্ণ ফলাফল করে বলে নিশ্চিত করেছেন এডেক্সেলের কান্ট্রি ডিরেক্টর সাইদুর রহমানও।

পরীক্ষায় প্রথম স্থান অধিকারী মোস্তফা জানায়, তার শিক্ষকরা যে শুধু পাঠ্যসূচির পড়াশোনা করান তাই নয় বরং যেকোনো প্রয়োজনেই শিক্ষার্থীদের সহায়তা করেন তারা। মোস্তফা বলে, “শৈশবে যখন আমি বাচ্চা অবস্থায় এই স্কুলে ভর্তি হয়েছিলাম, তখন থেকেই আমার জীবনে গুরুত্বপূর্ণ পরিবর্তন আসতে শুরু করেছিল। তাই আমার স্কুলের প্রতি আমি অত্যন্ত কৃতজ্ঞ।”

ইন্টারন্যাশনাল হোপ টার্কিশ স্কুলের ডেপুটি জেনারেল ডিরেক্টর ইয়াভুজ কোচা জানান, বাংলাদেশে ১৯৯৬ সালে তারা স্কুলটি পরিচালনা শুরু করেন এবং শিক্ষার্থীদের সাফল্য দ্বারপ্রান্তে পৌঁছে দেয়ার মাধ্যমে বাংলাদেশে এই স্কুলটিকে একটি ব্র্যান্ডে পরিণত করেছেন তারা।

তাদেরই একজন শিক্ষার্থী রাগিব মোস্তফা সম্পর্কে ইয়াভুজ কোচা জানান, গণিত পরীক্ষাতেও প্রথম স্থান অর্জনের মাধ্যমে রাগিব তার স্কুল এবং দেশকে আন্তর্জাতিক অঙ্গনেও পরিচিত করেছে। তিনি বলেন, “এই ঘটনায় আমরা অত্যন্ত আনন্দিত। আমাদের শিক্ষার্থী রাগিবের প্রতি আমাদের শুভেচ্ছা রইল।”

এদিকে, একই পরীক্ষায় টার্কিশ স্কুলের আরো দুজন শিক্ষার্থী বাংলাদেশের মধ্যে প্রথম স্থান অর্জন করেছে। বাণিজ্য বিভাগ থেকে জেরিন তাসনিম এবং বাংলাদেশে নিযুক্ত আফগানিস্তানের রাষ্ট্রদূতের ছেলে মাসুদ অরাজ টার্কিশ ভাষায় পরীক্ষার্থীদের মধ্যে সর্বোচ্চ নম্বর পেয়ে প্রথম হয়েছে। সূত্র: ওয়েবসাইট।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।