ভারতের মহারাষ্ট্র রাজ্যের পুনেতে পাহাড়ধস,১০ মৃতদেহ উদ্ধার, মাটিচাপা শতাধিক

ভারতের মহারাষ্ট্র রাজ্যের পুনেতে পাহাড়ধসে চাপা পড়া বাড়িঘর থেকে ১০টি মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। আরো মৃত্যুর আশঙ্কা করা হচ্ছে। চাপা পড়ে আছে শতাধিক মানুষ।

বুধবার পুনের ভিমশঙ্কর জ্যোতির্লিঙ্গের কাছের গ্রামে এই ধসের ঘটনায় ৪০টির মতো বাড়ি চাপা পড়ে।

ভারতের পার্লামেন্ট-বিষয়ক মন্ত্রী হর্ষবর্ধন পাতিল বার্তা সংস্থা আইএএনএসকে বলেন, উদ্ধারকর্মীরা ১০টি মৃতদেহ উদ্ধার করেছে। এখনো প্রায় দেড় শ মানুষ চাপা পড়ে আছে।

এর আগে স্থানীয় কমিশনার প্রভাকর দেশমুখের বরাত দিয়ে এনটিভি জানায়, কয়েক দিনের প্রবল বৃষ্টিতে পাহাড়ের একটি অংশের মাটি পুরোপুরি ধসে পড়ে। এতে  ওই গ্রামের  প্রায় ৪০টি বাড়ি চাপা পড়ে। ওই পাহাড়ের পাদদেশে প্রায় ৭০০ লোকের বসবাস ছিল বলে ভারতীয় গণমাধ্যমের খবরে জানানো হচ্ছে।

ধসের ঘটনার পর ভারতের ন্যাশনাল ডিজাস্টার রেসপন্স ফোর্সের আঞ্চলিক কর্মকর্তা অলোক অভস্থি জানান, “বেসামরিক প্রশাসন বলেছে, ৪২ থেকে ৫০টি বাড়ি ক্ষতিগ্রস্ত ও ১৫০ ব্যক্তি মাটিচাপা পড়েছে। আমরা দুটি উদ্ধারকারী দল পাঠিয়েছি।

ভারতের জাতীয় দুর্যোগ পুনর্বাসন দপ্তরের উপ মহাপরিদর্শক এস এস গুলেরিয়া জানান, ধসের খবর পেয়ে ৪২ জন উদ্ধারকর্মী ঘটনাস্থলের দিকে রওনা হয়েছেন। তবে প্রবল বৃষ্টি ও বেহাল সড়কের কারণে তাদের পৌঁছাতে সময় লাগছে।

অবশ্য ঘটনার পরপরই স্থানীয় বাসিন্দারা উদ্ধার কাজ শুরু করেছে বলে মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রীর দপ্তর থেকে জানানো হয়েছে। মুখ্যমন্ত্রী পৃথিবিরাজ চ্যাবন স্বয়ং এ বিষয়ে নির্দেশনা দিচ্ছেন।

সাগরে নিম্নচাপের প্রভাবে মহারাষ্ট্রের পুনে ও মুম্বাই অঞ্চলে গত কয়েকদিন ধরেই ভারী বৃষ্টিপাত হচ্ছে। মঙ্গলবার সকাল থেকে সারা দিনে সেখানে ২২ দশমিক ৪ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে বলে ভারতের আবহাওয়া অধিদপ্তর জানিয়েছে।

আরো বৃষ্টিপাতের পূর্বাভাস থাকায় উদ্ধার কাজ বিঘ্নিত হয়ে পরিস্থিতি নাজুক আকার ধারণ করতে পারে বলে আশঙ্কা করছেন স্থানীয় কর্মকর্তারা। সূত্র: ওয়েবসাইট।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।