গাজায় স্বাস্থ্য সেবা ভেঙে পড়ার মুখে, স্বাস্থ্য সেবায় বিপর্যয় দেখা দিতে পারে: জাতিসংঘ

জাতিসংঘের একজন মুখপাত্র জানিয়েছেন, গাজায় স্বাস্থ্য সেবা ভেঙে পড়ার পর্যায়ে পৌঁছে গেছে এবং সেখানে অতি দ্রুত চিকিৎসা সেবায় বড় ধরনের বিপর্যয় দেখা দিতে পারে।

 

জাতিসংঘের ত্রাণ ও পূর্ত বিভাগের কর্মকর্তা ক্রিস গানেস বলেন, “গত তিন সপ্তাহের তীব্র সংঘাতে এক হাজার ৭০০ ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছেন।” এছাড়া, জাতিসংঘ পরিচালিত স্কুলগুলোতে আশ্রয় নিয়েছে আড়াই লাখেরও বেশী ফিলিস্তিনি।

 

তিনি বলেন, “গাজার হাসপাতালগুলোর এক-তৃতীয়াংশ, ১৪টি ক্লিনিক এবং বেশ অনেক সংখ্যায় অ্যাম্বুলেন্স ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। পাঁচজন চিকিৎসাকর্মী নিহত হয়েছেন, আর দায়িত্ব পালন কালে আহত হয়েছেন আরো অনেকে। গানেস জানান, ৪০ শতাংশ চিকিৎসা কর্মী কাজে যোগ দিতে পারছেন না।

 

এদিকে, গাজায় সংঘাত অব্যাহত রয়েছে। ইসরাইলি বাহিনী সেখানে ১৩ বার বিমান হামলা চালিয়েছে, আর ইসরাইলে নিক্ষেপ করা হয়েছে দুটো রকেট। সর্বশেষ এসব হামলায় কমপক্ষে ৩০ জন নিহত এবং ১৫০ জন আহত হয়েছেন বলে গাজায় স্বাস্থ্য কর্মকর্তারা জানিয়েছেন।
 

খবরে বলা হচ্ছে, গাজার কোনো কোনো এলাকা থেকে ইসরাইল তার কিছু সৈন্য প্রত্যাহার করেছে।

 

ইসরাইলি প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু বলেছেন, “নিরাপত্তা নিশ্চিত করার লক্ষ্য অর্জিত না হওয়া পর্যন্ত ইসরাইল অভিযান অব্যাহত রাখবে।” সূত্র: বিবিসি

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।