শরণার্থী সংখ্যা সর্বকালের সর্বোচ্চ: জাতিসংঘ

সংঘাতের কারণে বাস্তুচ্যুত লোকের সংখ্যা সর্বকালের রেকর্ড ভেঙেছে বলে জানিয়েছে জাতিসংঘের উদ্বাস্তু বিষয়ক সংস্থা।

 

সংস্থাটির হিসেবে,  ২০১৫ সালের শেষ নাগাদ শরণার্থী, আশ্রয়প্রার্থী এবং অভ্যন্তরীণভাবে বাস্তুচ্যুত লোকের সংখ্যা ৬ কোটি ৬৩ লাখে পৌঁছেছে। এক বছরের এ ধরনের লোকের সংখ্যা বেড়েছে অর্ধকোটি। এর মানে হচ্ছে, বর্তমানে বিশ্বে  প্রতি ১১৩ জনে একজন এ পরিস্থিতির শিকার।

 

জাতিসংঘের উদ্বাস্তু বিষয়ক সংস্থার প্রধান বলেছেন, শরণার্থী সংকটকে পুঁজি করে ইউরোপের দেশগুলোতে উগ্র স্বাদেশিকতাবাদ বিকশিত হচ্ছে। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পর সবচেয়ে বড় এই শরণার্থী ঢলকে পুঁজি করে ইউরোপের উগ্র ডানপন্থী এবং অভিবাসন বিরোধীদের প্রতি সমর্থন বাড়ছে।

 

সংস্থাটি বলছে, এই প্রথম বিশ্বে শরণার্থীর সংখ্যা ৬ কোটি ছাড়িয়েছে। এদের অর্ধেকের বেশি এসেছে যুদ্ধবিধ্বস্ত সিরিয়া, আফগানিস্তান এবং সোমালিয়া থেকে।

 

সংস্থাটি বলছে, ইউরোপে শরণার্থী সংকট নিয়ে ব্যাপক আলোচনা হলেও প্রায় ৮৬ ভাগ শরণার্থীকে আশ্রয় দিয়েছে নিম্ন ও মধ্যম আয়ের দেশগুলো। তবে জার্মানি সবচেয়ে বেশি আশ্রয় প্রার্থীর অনুরোধ রক্ষা করেছে।

 

গত বছর সাগরপথে ইউরোপে ১০ লাখ ১১ হাজার ৭০০ শরণার্থী পৌঁছেছে বলে জানিয়েছে আন্তর্জাতিক অভিবাসন সংস্থা। তবে অন্যান্য সংস্থার মতে, এই সংখ্যা আরো অনেক বেশি।

 

সূত্র: বিবিসি

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।