শান্তিনগরে আটকে দিল হেফাজতে ইসলামের মিছিল

শান্তিনগরে আটকে দেয়া হয়েছে হেফাজতে ইসলাম মিছিল। জেরুজালেমকে ইসরায়েলের রাজধানী হিসেবে যুক্তরাষ্ট্রের স্বীকৃতির প্রতিবাদে ঢাকায় মার্কিন দূতাবাস ঘেরাওয়ের পূর্বঘোষিত কর্মসূচি অনুযায়ী দূতাবাস অভিমুখে মিছিল বের করেছে হেফাজতে ইসলাম। বুধবার বেলা ১২টার দিকে জাতীয় মসজিদ বায়তুল মোকাররমের উত্তর গেট থেকে মার্কিন দূতাবাস অভিমুখে বিক্ষোভ মিছিল নিয়ে এগিয়ে যেতে থাকেন হেফাজতের নেতাকর্মীরা। মিছিলটি পল্টন, কাকরাইল, শান্তিনগর, মালিবাগ মোড়, মৌচাক ও রামপুরা হয়ে দূতাবাসের দিকে যাওয়ার কথা থাকলেও নেতাকর্মীরা শান্তিনগর পর্যন্ত এসে থেমে গেছেন।

শান্তিনগর মোড়ে পুলিশের ব্যারিকেড থাকায় হেফাজতের নেতাকর্মীরা সামনে এগুতে পারছেন। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত তারা সেখানেই অবস্থান করছেন। তবে হেফাজত সূত্রে জানা গেছে মিছিলটি নিয়ে মার্কিন দূতাবাস পর্যন্ত নেতাকর্মীরা যাবেনই। এদিকে মার্কিন দূতাবাসা ঘিরে ব্যাপক নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করেছে আইন শৃঙ্খলা বাহিনী।

এর আগে বায়তুল মোকাররমের উত্তর গেটে জমায়েত হয়েছে হেফাজতে ইসলামের নেতা-কর্মীরা। তবে পুলিশ হেফাজত সমাবেশ ঘেরাও করে রেখেছিল বলে জানা যায়। এরপর বায়তুল মোকাররমে হেফাজতের সমাবেশে নেতারা বক্তব্য রাখার পর ঢাকাস্থ মার্কিন দূতাবাস ঘেরাও করার লক্ষ্যে মিছিল সহ রওনা হন বলে জানা গেছে।

এর আগে মঙ্গলবার মার্কিন দূতাবাস ঘেরাও কর্মসূচি সফল করার আহ্বান জানিয়ে হেফাজত ইসলামের আমির আল্লামা শাহ আহমদ শফী বলেছেন, পবিত্র মসজিদুল আকসাকে ঘিরে গড়ে ওঠা জেরুসালেম নগরীকে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসেডিন্ট অন্যায়ভাবে ইহুদিবাদী ইসরায়েলের রাজধানী ঘোষণা করে মুসলিম উম্মাহর বিরুদ্ধে যুদ্ধ লাগিয়ে দিয়েছে। তার সাম্রাজ্যবাদী আগ্রাসী সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে বিশ্ব মুসলিম নেতৃবৃন্দ ও জনসাধারণকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে।

গত ৭ ডিসেম্বর মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প জেরুজালেমকে ইসরায়েলের রাজধানী ঘোষণা করেন। এর প্রতিবাদে 8 ডিসেম্বর বায়তুল মোকাররমে এক প্রতিবাদ মিছিল থেকে মার্কিন দূতাবাস ঘেরাও কর্মসূচি ঘোষণা করে হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশ।