অভ্যুত্থানের অধ্যায়টি তুর্কি জনগণ চিরতরে বন্ধ করে দিয়েছে: এরদোগান

তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়্যেপ এরদোগান  বলেছে  অভ্যুত্থানের অধ্যায়টি তুর্কি জনগণ চিরতরে বন্ধ করে দিয়েছে এবং সেটি আর কোনো দিনই খোলা হবে । ২০১৬ সালের ১৫ জুলাইয়ের ব্যর্থ অভ্যুত্থান প্রচেষ্টার দ্বিতীয় বার্ষিকী উপলক্ষে রবিবার ইস্তাম্বুল ব্রিজে অনুষ্ঠিত এক বিশাল র‍্যালিতে অংশ নিয়ে এরদোগান এসব কথা বলেন।

এরদোগান বলেন, ‘আজ আমরা গভীর দুঃখ অনুভব করছি। একই সময়ে আমাদের বীরদের জন্য আমাদের অন্তরে অপরিমেয় গর্ববোধও করছি।’

সেই রাতে তুর্কি জনগণের সাহস ও প্রতিরোধের প্রশংসা করে তিনি বলেন, ‘এই বিজয় আমাদের শহীদদের সাহসের ফল, যারা বিদ্রোহীদের ট্যাংক ও প্লেনকে চ্যালেঞ্জ করেছিল।’

এরদোগান ১৫ জুলাই অভ্যুত্থান প্রচেষ্টাকে ‘তুর্কি জাতির পুনরুজ্জীবন’ ও ‘গণতন্ত্রের একটি বড় সংগ্রাম’ হিসাবে আখ্যায়িত করেন।

তিনি বলেন, ‘আমরা কখনোই ১৫ জুলাইয়ের ঘটনা ভুলে যাব না। যারা আমাদের জন্য প্রার্থনা করেছে এবং যারা ফেতু সন্ত্রাসীদের সহায়তা করেছে তাদের কাউকে ভুলে যাব না।’

এরদোগান ফেতু সন্ত্রাসী গোষ্ঠীকে একটি ‘অক্টোপাস’ এর সঙ্গে তুলনা করেন।

গ্রুপটির বিরুদ্ধে দেশব্যাপী যুদ্ধ ঘোষণার কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, আমাদের এই অক্টোপাসের ডানাগুলো কেটে ফেলতে হবে।

তিনি বলেন, ‘গত দুই বছরে আমরা রাষ্ট্র, ব্যবসায়ী সম্প্রদায়, আমলাতন্ত্র, বাণিজ্য, গণমাধ্যম এবং সুশীল সমাজের বৃহত্তর স্তরে সন্ত্রাসী গোষ্ঠীটির সমস্ত কাঠামো ভেঙে দিয়েছি।’

তিনি আরো বলেন, ‘ওই রাতে যেসব খুনী আমাদের নাগরিকদের গুলি করে হত্যা করেছিল, তাদেরকে কঠোর শাস্তি দেয়া হচ্ছে।’

সূত্র: আনাদুলো এজেন্সি