আঙ্কারায় মার্কিন ব্যবসায়িকদের সাথে এরদোগানের বৈঠক সম্পর্কে যা জানা যাচ্ছে - খবর তরঙ্গ
শিরোনাম :

আঙ্কারায় মার্কিন ব্যবসায়িকদের সাথে এরদোগানের বৈঠক সম্পর্কে যা জানা যাচ্ছে



অনলাইন ডেস্ক, (খবর তরঙ্গ ডটকম)

যুক্তরাষ্ট্রের বিভিন্ন কোম্পানির প্রতিনিধিদের নিয়ে বুধবার তুরস্কে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে দেশটির প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়্যেপ এরদোগান বলেন, যুক্তরাষ্ট্র এবং তুরস্কের মধ্যকার সম্পর্ক দ্বিপাক্ষিক বিনিয়োগ এবং ব্যবসা-বাণিজ্য বাড়ানোর মাধ্যমে আরো শক্তিশালী হবে। বর্তমানে সিরিয়া ইস্যুতে এই দুই দেশের মধ্যকার সম্পর্ক আরো খারাপের দিকে ধাবিত হচ্ছে। এর পূর্বে আঙ্কারা যুক্তরাষ্ট্রে আশ্রিত ফেতুল্লা গুলেনকে তুরস্কের নিকট সমর্পণ করার আহ্বান জানায়। এই ফেতুল্লা গুলেনকে আঙ্কারা ২০১৬ সালে তুরস্কে একটি ব্যর্থ সেনা অভ্যুত্থানে জড়িত থাকার দায়ে অভিযুক্ত করে।

 

অন্যদিকে যুক্তরাষ্ট্র তুরস্কে আটক ধর্মযাজক এন্ড্রু ব্রান্সনকে মুক্তি দিতে তুরস্কের প্রতি আহ্বান জানায়। উভয় দেশই তাদের সিদ্ধান্তে অটল থাকে এবং কেউ কারো আহ্বানে সাড়া দেয়নি। তুরস্কে দুই দশকেরও অধিক সময় ধরে বসবাসরত যুক্তরাষ্ট্রের ধর্মযাজক এন্ড্রু ব্রান্সনকে মুক্তি দিতে ডোনাল্ড ট্রাম্পের আহ্বানকে প্রত্যাখ্যান করার পরেই ওয়াশিংটন তুরস্কের উপর বেশ কয়েকটি অর্থনৈতিক নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে। যার মধ্যে অন্যতম ছিল তুর্কি ধাতু আমদানির উপর দ্বিগুণ শুল্ক আরোপ। এর জের ধরে গত কয়েক মাসের মধ্যেই তুর্কি মুদ্রা লিরার ব্যাপক দরপতনের সম্মুখীন হয়। তুরস্ক এর প্রতিক্রিয়ায় যুক্তরাষ্ট্রের অ্যালকোহল, গাড়ি এবং টোব্যাকো পণ্য আমদানির উপর দ্বিগুণ শুল্ক আরোপ করে।

 

‘আমি বিশ্বাস করি আমাদের কৌশলগত মিত্র যুক্তরাষ্ট্রের সাথে আমাদের সম্পর্ক আরো শক্তিশালী করা সম্ভব। এটি সম্ভব হবে উভয় দেশের মধ্যকার বিনিয়োগ এবং ব্যবসা বাণিজ্য বৃদ্ধির মাধ্যমে।’-এরদোগান এমনটি বলেন।

 

প্রসঙ্গত, যুক্তরাষ্ট্রের ব্যবসায়ীদের সাথে অনুষ্ঠিত বৈঠকটিতে কোনো গণমাধ্যমকে আমন্ত্রণ জানানো হয়নি। সেজন্য এরদোগানের দেয়া এসব বক্তব্য কি লিখিত ছিল নাকি সরাসরি বক্তব্য ছিলো তা নিশ্চিত করা সম্ভব হয়নি।

 

এরদোগান বলেন, ‘আমরা আমাদের সমস্যাগুলোকে কূটনৈতিকভাবে সমাধান করার পাশাপাশি ব্যবসায়িক বিশ্বকে আমাদেরকে সহযোগিতা করার জন্য উৎসাহিত করছি।’

 

‘যুক্তরাষ্ট্রের সাথে আমাদের সম্পর্ক যত তলানিতে থাকুক না কেন, আমরা কখনোই আপনাদের ব্যবসায়িক স্বার্থকে নেতিবাচক চোখে দেখবো না। আমরা প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেয়া অব্যাহত রাখবো। ’-শেষ এরদোগান এমনটি বলেন।

সূত্রঃ রয়টার্স।


এ সম্পর্কিত আরো খবর

আন্তর্জাতিক এর অন্যান্য খবরসমূহ
পূর্বের সংবাদ