ফেসবুকের দেবদাস

সোস্যাল নেটওয়ার্কিং সাইট ফেসবুকে বসে প্রেমিকা খোঁজার নেশা ধরেছিল সার্বিয়ার নাগরিক প্রেদ্রাগ জোভানভিচ। গুনে গুনে ৫ হাজার জনকে ফ্রেন্ড রিকোয়েস্ট পাঠিয়েছিলেন তিনি। তাও আবার সব মেয়ে। কিন্তু বিধি বাম, উত্তর প্রতিবারই না…
জানা যায়, ৩৪ বছর বয়সী জোভানের শখ হলো ফেসবুকে ঘণ্টার পর ঘণ্টা বসে বন্ধু বানানো। তবে বন্ধুত্ব থেকে প্রেম, আর প্রেমে থেকে ডেটিংয়ে যাওয়ার জন্য কদিন ধরেই পেদাগ্র একটা অন্য রকম স্ট্র্যাটেজি নিয়েছিল।
ফেসবুকে একসঙ্গে অনেকের সঙ্গে বন্ধুত্ব করার পর তাদের ডেটিংয়ে যাওয়ার প্রস্তাব দিয়েছিল সে। কিন্তু সেখানেও তার সাফল্যের হার খুবই কম। পাঁচ হাজার জনের মধ্যে জোভানভিচের ফ্রেন্ড রিকোয়েস্টে সাড়া দিয়েছে মাত্র ১৫ জন। আর ১৫ জনই প্রেম কিংবা ডেটিংয়ের প্রস্তাবে সরাসরি তাকে `না` করে দিয়েছে। জোভানভিচের তথ্য-প্রমাণ সহকারে নিজেই জানিয়েছেন এই কথা।

এই ব্যাপারটা নিয়ে বেশ মনখারাপ জোভানভিচের। তিনি বলেন, ‘আমি এমনিতে মেয়েদের সঙ্গে সরাসরি কথা বলতে খুব লজ্জা পাই। আমি বেলগ্রেড থেকে কিছুটা দূরে একটা ছোট শহরে থাকি। কিন্তু ওখানে বেশিরভাগ মেয়েই আমার চেয়ে বয়েসে বড় আর বাকিদের বিয়ে হয়ে গিয়েছে। লাজুক বলে আমার সঙ্গে সরাসরি কেউ বন্ধুত্ব পাতাতে চায় না। তাই ভেবেছিলাম ফেসবুকের মাধ্যমে আমি আমার একাকিত্ব কাটাতে পারব। সেখানেও ধাক্কা খেলাম।’

জোভানের এমন প্রেমে ছ্যাকা খাওয়ার খবরে গোটা ওয়েব দুনিয়া হয় মর্মাহত আর নয় কৌতুকে মত্ত।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।