রাজাপুরে ১১ লক্ষাধিক টাকা নিয়ে হিন্দু পরিবার উধাও

ঝালকাঠির রাজাপুরে বাদল শীল (৪৬) নামে এক ব্যক্তির বিরুদ্ধে ৪ জনের কাছ থেকে বিভিন্ন সময় ১১ লক্ষ ৩৫ হাজার টাকা নিয়ে উধাও হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় রাজাপুর সদরের মৃতু তৈয়ব আলী মাতুব্বরের ছেলে মাসুদ মাতুব্বর বাদি হয়ে গত ২৫ জুলাই বুধবার রাজাপুর থানায় লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন। অভিযোগ থেকে জানা গেছে, বাদল শীল ও মাসুদ মাতুব্বর রাজাপুর বাজারে আলাদাভাবে ব্যবসা করে আসছেন।

 

বাদল শীল ব্যবসায় টাকা খাটানোর কথা বলে মাসুদ মাতুব্বরের কাছ থেকে তিন লক্ষ টাকা নেয় এবং মেয়ের বিবাহের কথা বলে একলক্ষ ৫০ হাজার টাকা ধার নেয়। বাদল শীল তার স্ত্রী অঞ্জনা রানী, ছেলে জয়দেব শীল ওরফে বিশু, ভগ্নি পতি পরিমল শীল, ভাগিনা পলাশ শীলকে সাথে নিয়ে উপজেলা সদরের মৃতু ডা: আঃ ছত্তারের ছেলে মো: ইউসুফ আলী রিপনের কাছ থেকে ৫০ হাজার টাকা ধার নেয়।

 

বাদল শীল উপজেলা সদরের মৃতু নুর মোহাম্মদ খানের ছেলে আতিয়ার খানের সততা মাল্টি পারপাস অপারেটিভ হইতে ২ লক্ষ ৩৫ হাজার টাকা কিস্তিতে পরিশোধ করার কথা বলে নেয় এবং উপজেলা সদরের মৃতু ইসমাইল হাওলাদারের ছেলে মো: শিপন হাওলাদারের ফেমাস মাল্টপারপাস থেকে ৪ লক্ষ টাকা নিয়েছে। ওই টাকা চাইতে গেলে বাদল শীল বিভিন্ন ওয়াদা দিয়ে ঘুরাতে থাকে। মাসুদ মাতুব্বর গত ১৮ জুলাই বুধবার বাদল শীলের বাসায় গিয়ে কাউকে পায়নি। পরে জানতে পেরেছেন যে বাদল শীল ও তার ভগ্নিপতি পরিমল শীলের পরিবার তাদের ভাড়া বাসা ছেড়ে পালিয়ে কোথাও চলে গেছে। পুলিশ জানায়, বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে।