ঝালকাঠিতে ঘুর্ণিঝড়ে তাঁর ছিঁড়ে ও খুঁটি ভেঙে ৫ দিন ধরে দেড় হাজার পরিবার বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন, পূনঃনির্মান হয়নি বিদ্ধস্ত ঘরবাড়ি, পরীক্ষার্থীরা বিপাকে - খবর তরঙ্গ
শিরোনাম :

ঝালকাঠিতে ঘুর্ণিঝড়ে তাঁর ছিঁড়ে ও খুঁটি ভেঙে ৫ দিন ধরে দেড় হাজার পরিবার বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন, পূনঃনির্মান হয়নি বিদ্ধস্ত ঘরবাড়ি, পরীক্ষার্থীরা বিপাকে



মোঃ আঃ রহিম রেজা, (খবর তরঙ্গ ডটকম)

ঝালকাঠিতে ঘুর্ণিঝড়ে তাঁর ছিঁড়ে ও খুঁটি ভেঙে ৫ দিন ধরে দেড় হাজার পরিবার বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন, পূনঃনির্মান হয়নি বিদ্ধস্ত ঘরবাড়ি, পরীক্ষার্থীরা বিপাকে
ঝালকাঠি প্রতিনিধি


ঝালকাঠিতে ঘুর্ণিঝড় বুলবুলের আঘাতের ৫দিন অতিবাহিত হলেও শতাধিক গ্রামের দেড় সহ¯্রাধিক গ্রাহক ও পরিবার বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন রয়েছে। ঝড়ে বিদ্যুৎ বিভাগের ২৫ লক্ষ টাকার ক্ষতি হয়েছে। জেলা ও উপজেলা সদরের কিছু অংশে বিদ্যুৎ সরবরাহ স্বাভাবিক হলেও জেলার ৪ উপজেলার এসব এলাকায় করে নাগাদ চালু হবে তা অনিশ্চিত। কতৃপক্ষ জনিয়েছে মেরামত কাজ চলমান আছে দ্রæতই বিদ্যুৎ সরবরাহ স্বাভাবিক হবে।


অন্যদিকে বিদ্ধস্ত ঘরবাড়ি মেরামত বা পূনঃনির্মানের কোন উদ্যোগ দেখা যাচ্ছে না। ক্ষতিগ্রস্থদের তালিকা তৈরির কাজ চলছে সম্পন্ন হলে বরাদ্দ সাপেক্ষে গৃহ নির্মানসহ অন্যান্য সহায়তা দেয়া হবে বলে জেলা প্রশাসক। এদিকে বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্নের কারনে চলমান বিভিন্ন পাবলিক পরীক্ষার্থীরা পড়েছেন চরম বিপাকে। ঘুর্ণিঝড় বুলবুলের আঘাতে ঝালকাঠি জেলায় কোন প্রান হানি না ঘটলেও সামগ্রীক ভাবে জন জীবন বিপর্যস্থ হয়ে পড়েছে। যা স্বাভাবিক হতে দীর্ঘ সময় লেগে যাবে। জেলা সদরের কিছু কিছু অংশে ঘুর্ণিঝড়ের দু’দিন পরে বিদ্যুৎ সরবরাহ সচল হলেও জেলার প্রায় সকল গ্রামেই বিদ্যুৎ সরবরাহ স্বাভাবিক হয়নি। ঝালকাঠি বিদ্যুৎ বিভাগ সূত্র জানায়, জেলার বিভিন্ন স্থানে গাছ পালা উপড়ে পড়ে ওজোপাডিকোর ৩ কিলোমিটার এবং পল্লী বিদ্যুতায়ন বোর্ডের ৫ শতাধিক স্থানের বিদ্যুৎ লাইনের তার ছিড়ে গেছে।


এছাড়া অর্ধশতাধিক খুটি ভেঙে গেছে এবং আরো অর্ধশতাধিক হেলে পরেছে। এছাড়া ৮টি ট্রান্সমিটার ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে। লাইন ঠিক করার জন্য দিনরাত কাজ করে যাচ্ছে বিদ্যুৎ বিভাগের লোক, তবে কতদিন লাগবে তা সঠিকভাবে বলতে পারছে না কতৃপক্ষ। ঝালকাঠি পল্লী বিদ্যুত সমিতির ১ লাখ ২১ হাজার গ্রাহকের মধ্যে এখনও দেড় হাজারেরও বেশি গ্রাহক বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন রয়েছে বলে জানান কর্তৃপক্ষ। এতে করে বিদ্যুৎ সরবরাহ বন্ধ থাকায় মোবাইল নেটওর্য়াক এবং স্বাভাবিক জীবনযাত্রা চরমভাবে বিগ্নিত হচ্ছে।


অন্যদিকে জেলা সহ¯্রাধীক ঘরবাড়ি বিদ্ধস্ত হয়েছে। যা পূনঃ নির্মানের সংগতি অনেকেরই নেই। ফলে জীবনযাত্রা স্বাভাবিক হতে অনেক দিন লেগে যেতে পারে।


ক্ষতিগ্রস্থরা জানান, অনেক দিন ধরে বিদ্যুৎ সরবরাহ বন্ধ থানায় চরম ভোগান্তিতে পড়তে হচ্ছে। এবং অনেকের কর্ম বন্ধ রয়েছে। ঘরবাড়ি ও খেত খামারের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে, সরকারি সহায়তা না পেলে এ ক্ষতি পূষিয়ে উঠা সম্ভব নয়। এখনও কোন সহায়তা পাননি তারা। ঝালকাঠি জেলা প্রশাসক মোঃ জোহর আলী জানান, ঝড়ে বিদ্যুৎ বিভাগের ২০ লক্ষ টাকারও বেশিসহ জেলা সর্বমোট ১২ কোট টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। চুড়ান্ত হিসেবে এর পরিমার আরো বড়তে পারে। এছাড়া ক্ষতিগ্রস্থদের তালিকা প্রস্তুত করা হচ্ছে। এ প্রক্রিয়া সম্পন্ন হলে বরাদ্দ সাপেক্ষে পূনর্বাসান শুরু করা হবে।)




জেলা এর অন্যান্য খবরসমূহ
ঝালকাঠি এর অন্যান্য খবরসমূহ