নতুন দল নিবন্ধন আবেদন জমা দেয়ার শেষ তারিখ ৩১ জানুয়ারি - খবর তরঙ্গ
শিরোনাম :

নতুন দল নিবন্ধন আবেদন জমা দেয়ার শেষ তারিখ ৩১ জানুয়ারি



ঢাকা, (খবর তরঙ্গ ডটকম)

আগামী ৩১ জানুয়ারি বৃহস্পতিবার শেষ হচ্ছে ফের নতুন দল নিবন্ধন আবেদন জমা দেয়ার তারিখ। ৩১ ডিসেম্বর প্রথম দফা আবেদনের সময় শেষ হয়। এরপর কিছু নতুন দলের আহ্বানের ভিত্তিতে ফের নিবন্ধন আবেদনের সময়সীমা ৩১ জানুয়ারি পর্যন্ত বাড়ায় ইসি। নির্বাচন কমিশন (ইসি) সচিবালয় থেকে তথ্য জানা যায়। দ্বিতীয় দফায় নতুন আরো নয়টি দল নিবন্ধনের আবেদন করেছে। ইসি সূত্র জানায়, প্রথম দফায় ২৩ অক্টোবর থেকে আবেদনপত্র গ্রহণ শুরু হয়। আগামী জাতীয় নির্বাচনকে সামনে রেখে নতুন দল নিবন্ধনের এ প্রক্রিয়া হাতে নেয় ইসি। প্রথম দফায় ৩১টি দল নিবন্ধনের জন্য আবেদন করে।

নিবন্ধন পেতে হলে একটি নতন দলকে নিম্নোক্ত শর্তগুলো পূরণ করতে হবে- দলের নিজস্ব প্যাডে আবেদন করতে হবে। আবেদনপত্রের সঙ্গে দলের গঠনতন্ত্র, নির্বাচনের ইশতেহার, লোগো ও পতাকার ছবি, কেন্দ্রীয় কমিটির সব সদস্যের পদবিসহ নামের তালিকা, দলের নিজস্ব ব্যাংক অ্যাকাউন্ট, বাংকের নাম ও সর্বশেষ হিসাব, দলীয় তহবিলের উৎসের বিবরণ, নিবন্ধন আবেদন করার সংশ্লিষ্ট অনুকূলে প্রদত্ত ক্ষমতাপত্র, ফি বাবদ ট্রেজারি চালানের কপি জমা দিতে হবে।

একইসঙ্গে আবশ্যিকভাবে আবেদনপত্রের সঙ্গে স্বাধীনতার পর থেকে এ পর্যন্ত দেশের যেকোনো স্থানে সংসদীয় নির্বাচনে অন্তত একটি আসনে জয়ের সমর্থনে দলিলপত্র, বা কোনো একটি সংসদ নির্বাচনে যেকোনো একটি আসনের অন্তত ৫ শতাংশ ভোট প্রাপ্তির প্রত্যয়নপত্র, বা দলের একটি সজ্জিত কেন্দ্রীয় কার্যালয়, ন্যূনতম একশ উপজেলায় সক্রিয় কমিটি যার প্রত্যেকটিতে ন্যূনতম দুইশ ভোটার সদস্য হিসেবে তালিকাভুক্ত থাকার সপক্ষে প্রামাণিক দলিলপত্র প্রদান করতে হবে।

এদিকে নিবন্ধনের এসব শর্তকে কঠিন বলে অভিযোগ করছেন নতুন দল নিবন্ধন প্রত্যাশীরা।

এ বিষয়ে নির্বাচন কমিশন সচিব ড. মোহাম্মদ সাদিক বলেন, “আমরা যথাযথ আইনি প্রক্রিয়া মেনে নতুন দলের নিবন্ধনের আবেদনপত্র আহ্বান করেছি। শর্তপূরণ করতে পারলে দলগুলো নিবন্ধন পাবে। শর্ত পূরণে ব্যর্থ হলে পাবে না।”

দল হিসেবে নিবন্ধন পাওয়ার জন্য শর্তগুলো যথাযথভাবে পূরণ করে আবেদনপত্র জমা দেয়ার জন্যই আহ্বান জানান তিনি।

উল্লেখ্য, বর্তমানে ইসি নিবন্ধিত রাজনৈতিক দলের সংখ্যা ৩৮টি। এরমধ্যে অধিকাংশেরই কেন্দ্রীয় কার্যালয় বা জেলা কমিটি নেই।

নিবন্ধিত দলগুলো ইসির শর্ত মেনে চলছে কি-না তা তদারকি করার জন্য শিগগিরই কমিশনের একটি টিম মাঠে নামবে বলে ইসি সূত্রে জানা যায়। অনিয়ম পেলে নিবন্ধিত দলগুলোর বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেয়ার ঘোষণাও দিয়েছে কমিশন। আবেদনপত্র বাছাইয়ের পরই ইসির টিম এ বিষয়ে তদন্ত করতে মাঠে নামবে।

উল্লেখ্য, ২০১৪ সালের ২৪ জানুয়ারির মধ্যে দশম জাতীয় নির্বাচন অনুষ্ঠান করতে হবে ইসিকে। কমিশন ২০১৩ সালে ডিসেম্বরের শেষ সপ্তাহে এ নির্বাচন অনুষ্ঠানের পরিকল্পনা করছে।


পূর্বের সংবাদ