পদ্মা সেতু, বিশ্ব ব্যাংকের পর সরে গেল দ্বিতীয় প্রধান অর্থায়নকারী- এডিবি - খবর তরঙ্গ
শিরোনাম :

পদ্মা সেতু, বিশ্ব ব্যাংকের পর সরে গেল দ্বিতীয় প্রধান অর্থায়নকারী- এডিবি



ঢাকা, (খবর তরঙ্গ ডটকম)

বৃহস্পতিবার বাংলাদেশ সরকারের পাঠানো এক চিঠির মাধ্যমে পদ্মাসেতুতে অর্থায়নের প্রস্তাব প্রত্যাহার করার পর  এ প্রস্তাব আমলে নেয় বিশ্বব্যাংক, শুক্রবার সকালে চিঠি পাওয়ার কথা জানায় সংস্থাটি। আর এর একদিনের মধ্যেই প্রকল্পটিতে অর্থায়ন বাতিলের ঘোষণা দিয়েছে দ্বিতীয় প্রধান অর্থায়নকারী- এশিয় উন্নয়ন ব্যাংক বা এডিবি। বিশ্ব ব্যাংকের অর্থায়নের আশা বাদ দেবার পর শুক্রবার সন্ধ্যায় সরকারের এক তথ্য বিবরণীতে বলা হয়, ‘অন্যান্য উন্নয়ন সহযোগীদেরও এই তথ্য সরবরাহ করে তাদের সহযোগিতা অব্যাহত রাখার আহবান জানানো হয়। এই প্রকল্প বাস্তবায়নের সময়সূচি এবং পদক্ষেপ নিয়ে সকল উন্নয়ন সহযোগীদের সঙ্গে আলোচনার জন্য সত্বর তাদের ঢাকায় আহবান করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।’
কিন্তু শুক্রবার রাতে ফিলিপাইনের ম্যানিলাস্থ সদর দফতর থেকে এক বিবৃতিতে এডিবি জানায়, যেহেতু আয়োজনটি ছিল যৌথ অর্থায়নের- ফলে বিশ্ব ব্যাংক কর্তৃক অর্থায়ন বাতিলের পর এডিবিও এই লেনদেন নিয়ে অগ্রসর হতে অক্ষম’। সততা, সুশাসন ও দুর্নীতিবিরোধী মানদণ্ডের ব্যাপারে এডিবি প্রতিশ্রুতিবদ্ধ উল্লেখ করে বিবৃতিতে বলা হয়, ‘কাজেই আমরা একটি পূর্ণাঙ্গ ও সুষ্ঠু তদন্ত চালিয়ে যেতে বাংলাদেশের দুর্নীতি দমন কমিশনকে এবং শাসন ব্যবস্থার সংস্কারে নিজেদের প্রচেষ্টা অব্যাহত রাখতে সরকারকে উৎসাহিত করছি। সমন্বিতভাবে এসব পদক্ষেপ দীর্ঘমেয়াদে মানুষকে ও অর্থনীতিকে সুফল এনে দেবে’।

২৯০ কোটি ডলারের এ প্রকল্পে বিশ্ব ব্যাংকের ১২০ কোটি ডলার দেয়ার কথা ছিল। এছাড়া এডিবি ৬১ কোটি, জাইকা ৪০ কোটি ও আইডিবি ১৪ কোটি ডলার দেয়ার জন্য চুক্তি করে সরকারের সঙ্গে।তবে প্রকল্প ঘিরে সরকারের উচ্চ পর্যায়ের লোকেদের দুর্নীতির অভিযোগ তুলে বিশ্ব ব্যাংক অর্থায়ন স্থগিত করলে দেশের দীর্ঘতম সেতু নির্মাণের কাজ আটকে যায়।

এরপর সরকারের অনুরোধে শর্তসাপেক্ষে সিদ্ধান্ত পুনর্বিবেচনার সম্ভাবনার কথা জানিয়েছিল সংস্থাটি। তবে দুর্নীতি তদন্তের সেই শর্ত পূরণে বাংলাদেশের প্রচেষ্টার ব্যাপারে নিজেদের অসন্তোষের কথাও জানিয়ে আসছিল বিশ্ব ব্যাংক। বিশেষত, বিশ্ব ব্যাংক কর্তৃক সন্দেহভাজন সাবেক যোগাযোগমন্ত্রী সৈয়দ আবুল হোসেন ও এক সচিবের বিরুদ্ধে ফৌজদারি ব্যবস্থা না নেয়ায় আপত্তি করে সংস্থাটি।


পূর্বের সংবাদ