"শাহবাগে নতুন কর্মসূচি ঘোষণা" - খবর তরঙ্গ
শিরোনাম :

“শাহবাগে নতুন কর্মসূচি ঘোষণা”



ঢাকা, (খবর তরঙ্গ ডটকম)

মানবতাবিরোধী অপরাধীদের ফাঁসির দাবিতে তিন মিনিট নীরবতা পালনের পর গত কাল মঙ্গলবার নতুন করে মেমাবাতি জালানোর কর্মসূচির ঘোষণা দেওয়া হয়েছে। শাহবাগের প্রজন্ম চত্ব্বরে আজ বুধবার বেলা তিনটায় শুরু হবে বিপ্লবী গণসংগীত পরিবেশন। পরদিন বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা সাতটার দিকে সারা দেশে একযোগে মোমবাতি প্রজ্ব্বালন করা হবে। শাহবাগে মোমবাতি জ্বালিয়ে যুদ্ধাপরাধীদের সর্বোচ্চ শাস্তির দাবি জানাচ্ছে তিন শিশু। ব্লগার ও ফেসবুক অ্যাক্টিভিস্ট নেটওয়ার্কের ইমরান এইচ সরকার আজ মঙ্গলবার রাতে এ কর্মসূচির ঘোষণা করেন। আয়োজকদের একজন ছাত্র ইউনিয়নের সাবেক সভাপতি খান আসাদুজ্জামান জানান, বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় যে যেখানে থাকবেন, সেখানেই একটি করে মোমবাতি জ্বালিয়ে যুদ্ধাপরাধীদের সর্বোচ্চ শাস্তির দাবি জানানোর কর্মসূচিতে একাত্মতা প্রকাশ করতে পারবেন। আন্দোলনকারীদের দাবির সঙ্গে একাত্মতা প্রকাশ করছেন। যোগ দিচ্ছে বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শত শত শিক্ষার্থী। আজ সকালে রূপসী বাংলা হোটেল থেকে শাহবাগ হয়ে মত্স্য ভবন যাওয়ার পথটি খুলে দেওয়া হয়েছে। এর ফলে ওই সড়ক দিয়ে এখন যান চলাচল করছে।
শাহবাগে প্রজন্ম চত্বরে তারুণ্যের প্রতিবাদ আজ নবম চলছে। টানা ৮ দিন রাজপথে কাটালেও এতটুকু ক্লান্তির ছাপ নেই আন্দোলনকারীদের কণ্ঠে। স্লোগান, কবিতা, গান আর দেশপ্রেমে উদ্বুদ্ধ জনতার কণ্ঠে যুদ্ধাপরাধীদের ফাঁসির দাবি চলছেই।
সময় যত গড়াচ্ছে, লোকসমাগম বাড়ছে ততই। প্রতিবাদী তারুণ্যের প্রতিবাদ চলছেই। সকাল থেকেই নানা শ্রেণী-পেশার মানুষ শাহবাগের প্রজন্ম চত্বরে গিয়ে
কাদের মোল্লার যাবজ্জীবন সাজার রায় প্রত্যাখ্যান করে ৫ ফেব্রুয়ারি বিকেলে শাহবাগ মোড়ে এই বিক্ষোভের সূচনা করে ব্লগার ও অনলাইন অ্যাকটিভিস্ট ফোরাম। এরপর বিভিন্ন সংগঠনের নেতা-কর্মীরা এ আন্দোলনে যোগ দেন। গত ৮ ফেব্রুয়ারি লাখো জনতার মহাসমুদ্রের কেন্দ্রবিন্দু শাহবাগের ‘প্রজন্ম চত্বরের’ নবজাগরণ মঞ্চ থেকে দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত এই লড়াই চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দেওয়া হয়।


পূর্বের সংবাদ