সহিংসতায় বাংলাদেশের নির্বাচন বিঘ্নিত হতে পারে: দৈনিক দ্য গার্ডিয়ান

বাংলাদেশে আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে কেন্দ্র করে চলতি বছরের শেষের দিকে দেশজুড়ে সহিংসতা ও বিক্ষোভ বাড়তে পারে এবং এতে নির্বাচন বিঘ্নিত হতে পারে বলে এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে প্রভাবশালী বৃটিশ দৈনিক দ্য গার্ডিয়ান। প্রতিবেদনে বলা হয়, তত্ত্বাবধায়ক সরকারের দাবিতে বিরোধী দল এরই মধ্যে বিভিন্ন বিক্ষোভ কর্মসূচি নিয়েছে। তাই আসন্ন নির্বাচনকে কেন্দ্র করে দেশের পরিস্থিতি আরো উত্তপ্ত হয়ে উঠতে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। গার্ডেনের প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়, ছয় বছর আগে নবম জাতীয় সংসদ নির্বাচন বানচাল হয়ে যায়। তখন জরুরি অবস্থা জারি করা হয়। সেনা সমর্থিত তত্ত্বাবধায়ক সরকার ক্ষমতায় আসে। চলতি বছরের ফেব্রুয়ারিতে যুদ্ধাপরাধের বিচারের রায় ঘোষণা হওয়ার পর দেশজুড়ে বিক্ষোভে ৭০ জনেরও বেশি মানুষ নিহত হয়েছে। এপ্রিলে রানা প্লাজা ধসে এক হাজারের বেশি মানুষ নিহত হওয়ার পর এমনিই বাংলাদেশের পোশাক শিল্পে ধস নেমেছে। এরপর নতুন করে যদি কোনো রাজনৈতিক অস্থিরতা তৈরি হয় তাহলে সম্ভাবনাময় এই খাতে আরো ক্ষতির আশঙ্কা প্রকাশ করা হয় গার্ডেনের প্রতিবেদনে। প্রতিবেদনে বলা হয়, প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা গওহর রিজভী বলেছেন, তারা আসন্ন নির্বাচনের জন্য পুরোপুরি প্রস্তুত। যুদ্ধাপরাধের ব্যাপারে তিনি বলেন, “ট্রাইবুনালে রায় ন্যায় বিচার প্রতিষ্ঠা করেছে।” যথাসময়ে সংবিধান অনুযায়ীই নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে বলেও জানান রিজভী। তবে প্রধান বিরোধী দল বিএনপির তত্ত্বাবধায়ক সরকারের দাবি ব্যাপারটি অমীমাংসিতই রয়ে গেছে।

এদিকে, বিএনপির এক শীর্ষ নেতা গার্ডিয়ানকে জানিয়েছেন, ক্ষমতাসীন দল তাদের নির্বাচন বর্জনের দিকে ঠেলে দিচ্ছে। তিনি আরো জানান, বাংলাদেশে কখনোই দুইবার একই সরকার থাকে না। তাই আওয়ামী লীগ ভালো করেই জানে তারা এই নির্বাচনে হারবে। তাই ক্ষমতা ধরে রাখার জন্য তারা সবরকম চেষ্টা করতে প্রস্তুত। এইচএসসি পরীক্ষা শেষ হওয়ার পর এবং রমজান শুরুর আগেই বিএনপি বৃহত্তম কর্মসূচি দেবে বলেও জানানো হয় গার্ডিয়ান’র প্রতিবেদনে। বাংলাদেশে ইসলামি দলগুলোর ভূমিকা, চলমান যুদ্ধপরাধের বিচার এবং তরুণ ভোটারদের দলীয় রাজনীতির প্রতি উদাসীনতা এই তিনটি বিষয় পরস্পরের সঙ্গে একসূত্রে গাঁথা বলে গার্ডিয়ানের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।


সম্পাদনা: শামীম ইবনে মাজহার,নিউজরুম এডিটর

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।