সারা দেশে সিএনজি স্টেশনে অনির্দিষ্টকালের ধর্মঘট

শুক্রবার সকাল ৬টা থেকে সিলেটের ধর্মঘটের সঙ্গে একাত্মতা প্রকাশ করে সারা দেশে অনির্দিষ্টকালের ধর্মঘটের ডাক দিয়েছে রিফুয়েলিং স্টেশন মালিকরা। বৃহস্পতিবার এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে এই কর্মসূচির ডাক দেয়া হয়।

এতে কর্মসূচির পেছনে অভিযানের নামে ম্যাজিস্ট্রেটের ‘হয়রানি’ ও ‘বেআইনি’ জরিমানা আদায়ের অভিযোগ করা হয়েছে।

সিএনজি ফিলিং স্টেশন অ্যান্ড কনভার্শন ওয়ার্কশপ ওনার্স অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি জাকির হোসেন নয়ন বলেছেন, ‘শুক্রবার সকাল ৬টা থেকে দেশের কোনো সিএনজি স্টেশনে গ্যাস দেয়া হবে না।’

এর আগে আজ সিলেট নগরীর সোবহানীঘাটে মহানগর বিএনপির সভাপতি এমএ হকের বেঙ্গল ফিলিং স্টেশন অ্যান্ড কনভার্সন সেন্টারে ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযান ও জরিমানা আদায়ের প্রতিবাদে জেলার সকল পেট্রোল পাম্পে অনির্দিষ্টকালের ধর্মঘট আহ্বান করা হয়েছে।

পেট্রোল পাম্প ওনার্স অ্যাসোসিয়েশন এ ধর্মঘটের ডাক দেয়। সংগঠনের সভাপতি জুবায়ের আহমদ চৌধুরী সাংবাদিকেদর এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

অ্যাসোসিয়েশন নেতৃবৃন্দের দাবি, সম্পূর্ণ অন্যায়ভাবে বেঙ্গল ফিলিং স্টেশনে ভ্রাম্যমান আদালত অভিযান চালিয়ে জরিমানা করেছে এবং খাতাপত্র তছনছ করেছে।

জানা যায়, বৃহস্পতিবার সকালে ভ্রাম্যমান আদালত সোবহানীঘাটস্থ বেঙ্গল ফিলিং স্টেশন অ্যান্ড কনভার্সন সেন্টারে অভিযান চালায়। এ সময় মিটার ঠিক না থাকাসহ আরো কয়েকটি কারণে ফিলিং স্টেশনটিকে ৫ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়।

এর প্রতিবাদে সিলেটে অনির্দিষ্টকালের জন্য ধর্মঘট আহ্বান করে পেট্রোল পাম্প ওনার্স অ্যাসোসিয়েশন।

এর সঙ্গে একাত্মতা জানিয়েই রাতে সারা দেশে ধর্মঘটের ঘোষণা দেয় সিএনজি ফিলিং স্টেশন অ্যান্ড কনভার্শন ওয়ার্কশপ ওনার্স অ্যাসোসিয়েশন। সংগঠনের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, জ্বালানি মন্ত্রণালয়ের একজন ম্যাজিস্টেট গত কিছুদিন ধরে বিভিন্ন সিএনজি স্টেশনে গিয়ে মালিকদের ‘হয়রানি’ এবং ‘বেআইনিভাবে’ লাখ লাখ টাকা জরিমানা করছে।

এতে আরো বলা হয়, ‘এর ধারাবাহিকতায় গত ২২ মে ঢাকার মুগদার শান্ত সিএনজি রি-ফুয়েলিং স্টেশনে সংযোগ বিছিন্ন করে স্টেশনের মিটার নিয়ে যান ম্যাজিস্ট্রেট। তিনি মিটারটি বেআআইনিভাবে এক মাসের বেশি সময় নিজের হেফাজতে রাখেন।’

‘গত ২৬ জুন পেট্টোবাংলা ও গ্যাস বিতরণ কোম্পানিগুলোর সঙ্গে অ্যাসোসিয়েশনের কেন্দ্রীয় কমিটির এক যৌথ সভা হয়, যেখানে গ্যাসের ‘ডেনসিটি ফ্যাক্টর’ নির্ধারণে বিএসটিআইয়ের সমন্বয়ে এক যৌথ কমিটি গঠনের সিদ্ধান্ত হয় বলে সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়।

এই কমিটির কার্যক্রম শেষ না হওয়া পর্যন্ত ম্যাজিস্ট্রেট সিএনজি স্টেশনে হয়রানি করবেন না বলে ওইদিন সমিতির নেতৃবৃন্দকে আশ্বস্ত করেন পেট্টোবাংলার চেয়ারম্যান। কিন্তু ওই ম্যাজিস্টেট বৃহস্পতিবারও সিলেটের বেঙ্গল ফিলিং স্টেশনে গিয়ে হয়রানি করেন।

এ ঘটনার প্রতিবাদে সিলেটে অনির্দিষ্টকালের ধর্মঘট পালন করা হচ্ছে। আর সিলেটের কর্মসূচির সঙ্গে একাত্মতা ঘোষণা করে অ্যাসোসিয়েশনের কেন্দ্রীয় কার্যকরি কমিটির জরুরি সভায় শুক্রবার সকাল থেকে দেশের সব সিএনজি স্টেশনে অনির্দিষ্টকালের ধর্মঘটের সিদ্ধান্ত হয় বলে সংগঠনের সভাপতি জাকির হোসেন নয়ন জানান।

এদিকে, সিলেটে ধর্মঘট শুরুর পর সন্ধ্যায় ভ্রাম্যমাণ আদালতের বিচারক নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আবদুল হাইকে প্রত্যাহার করার দাবিতে সিলেট-ঢাকা মহাসড়কের চণ্ডিপুল, সিলেট-জকিগঞ্জ সড়কের গোলাপগঞ্জ ও সিলেট-তামাবিল সড়কের পীরের বাজারে সড়ক অবরোধ করে পেট্রোল পাম্প ও সিএনজি স্টেশনের লোকজন।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।