তিনদিন ব্যাপী ডিসি সম্মেলনের উদ্বোধন

মঙ্গলবার সকাল ১০টার দিকে সারাদেশের জেলা প্রশাসকদের নিয়ে ঢাকায় তিন দিনব্যাপী সম্মেলনের উদ্বোধন করা হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এ সম্মেলনের উদ্বোধন করেন।

প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে পুরাতন সংসদ ভবনের শাপলা হলে এ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হচ্ছে।  এ উপলক্ষে ইতোমধ্যে সব জেলা প্রশাসকরা সম্মেলনস্থলে এসে পৌঁছেছেন। সম্মেলনে সরকারের বিভিন্ন উন্নয়ন কাজ পরিপূর্ণভাবে বাস্তবায়নে করণীয় নিয়ে আলোচনা করা হবে।

এর আগে সোমবার মন্ত্রী পরিষদ সচিব মোশারফ হোসেন সংবাদ ব্রিফিংয়ে জানান, মন্ত্রীপরিষদ সম্মেলন কক্ষে তিনদিন ব্যাপী ডিসি সম্মেলন ২৩ জুলাই শুরু হয়ে চলবে ২৫ জুলাই পর্যন্ত।

ডিসি সম্মেলনের বিভিন্ন অধিবেশন ও আলোচ্যসূচির খসড়া চূড়ান্ত করা হয়েছে।

ফৌজদারি কার্যবিধি-সিআরপিসিসহ বিভিন্ন বিষয় উপস্থাপন করবেন জেলা প্রশাসক (ডিসি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটরা।

এবারও জেলা প্রশাসকরা তাদের ক্ষমতা বাড়ানোর প্রস্তাবসহ মাঠ প্রশাসনে কর্মরত বিভাগীয় কমিশনার, ডিসি ও ইউএনওদের জন্য ঝুঁকি ভাতা এবং পুলিশের মতো রেশন ব্যবস্থা চালু করার দাবি করবেন।

এরইমধ্যে জেলা প্রশাসকরা সম্মেলনে আলোচনার বিষয় অন্তর্ভুক্তি করার জন্য তাদের দাবিসহ বিভিন্ন প্রস্তাব মন্ত্রিপরিষদ বিভাগে পাঠিয়েছেন।

ডিসিদের শতাধিক দাবি ও প্রস্তাবের মধ্যে বেশকিছু গুরুত্বপূর্ণ বিষয় উঠে এসেছে এবার। এর মধ্যে চট্টগ্রাম, রংপুর ও রাজশাহীর ডিসি সিআরপিসি বা ফৌজদারি কার্যবিধির বেশকিছু পরিবর্তন চেয়ে ক্ষমতা ফিরে পেতে সুনির্দিষ্ট প্রস্তাব করেছেন।

প্রস্তাবে বলা হয়েছে, বিচার বিভাগ পৃথকীকরণের পর মাঠ প্রশাসনের আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখাসহ বিভিন্ন প্রশাসনিক কার্যক্রম সুষ্ঠু ও সুচারুরূপে সম্পন্ন করার ক্ষেত্রে বিঘ্ন সৃষ্টি হচ্ছে। এজন্য তারা জেলা ম্যাজিস্ট্রেসিতে কর্মরত নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটদের ক্ষমতা বাড়তে ফৌজদারি কার্যবিধি ১৮৯৮-এর ১৫৬ (আমলযোগ্য মামলার তদন্ত), ১৫৯ (তদন্ত বা প্রাথমিক অনুসন্ধান করার ক্ষমতা), ১৯০(১)(এ)(বি)(সি) (ম্যাজিস্ট্রেট কর্তৃক অপরাধ আমলে নেওয়া তৎপরবর্তী কিছু ক্ষমতা), ১৯১ (আসামির আবেদনক্রমে মামলা হস্তান্তর), ১৯২(২) (প্রথম শ্রেণির ম্যাজিস্ট্রেট কর্তৃক কোনো মামলা আমলে নেওয়া ও বিচার সংশিষ্ট কিছু ক্ষমতা), ২০২ (পরওয়ানা দান স্থগিত রাখা) এবং ২৬০-২৬৫ (সংক্ষিপ্ত বিচার সংক্রান্ত বিভিন্ন ক্ষমতা) ধারায় ক্ষমতা প্রয়োগের এখতিয়ার চান। ফৌজদারি কার্যবিধি সংশোধন করে এ ক্ষমতা পুনর্বহাল করার দাবি জানানো হয়েছে।

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটদের ঝুঁকি ভাতা দেওয়ার প্রস্তাব করেছেন চাঁপাইনবাবগঞ্জ, ময়মনসিংহ, নারায়ণগঞ্জ ও মুন্সীগঞ্জের ডিসি। তাদের দাবি মাঠ প্রশাসনে আইনশৃঙ্খলা রক্ষা, ত্রাণ তৎপরতা পরিচালনাসহ জরুরি পরিস্থিতি মোকাবেলায় নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটদের আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সঙ্গে ঝুঁকি নিয়ে কাজ করতে হয়। অথচ এ ক্ষেত্রে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যদের ঝুঁকি ভাতা চালু থাকলেও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটদের জন্য বরাদ্দ নেই।

বিভাগীয় কমিশনার, ডিসি ও ইউএনওদের জন্য বিশেষ ভাতা দেওয়ার প্রস্তাব করেছেন নাটোরের ডিসি। জেলা প্রশাসনের আওতাধীন সব কর্মকর্তা-কর্মচারীর জন্য পুলিশ বিভাগের মতো রেশন পদ্ধতি চালু করার দাবি জানান তিনি।

এছাড়া সরকারি কর্মকর্তাদের জন্য পূর্ণাঙ্গ চিকিৎসা বীমা চালুসহ সন্তানের শিক্ষা ভাতা চালু করার প্রস্তাব দিয়েছেন চাঁপাইনবাবগঞ্জের ডিসি।

এছাড়া অন্যান্য জেলা প্রশাসকরা নিজ জেলার উন্নয়নের বিভিন্ন প্রস্তাবনা পাঠিয়েছেন।


সম্পাদনা: শামীম ইবনে মাজহার,নিউজরুম এডিটর

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।