একমাস সিয়াম সাধনার পর সারাদেশে মুসলমানদের আজ খুশির ঈদ

পবিত্র শাওয়াল মাসের চাঁদ দেখা গেছে। শুক্রবার উদযাপিত হবে পবিত্র ঈদুল ফিতর। খবর তরঙ্গ পরিবারের পক্ষ থেকে সবাইকে পবিত্র ঈদুল ফিতরের শুভেচ্ছা- ঈদ মোবারবক। ‘রমজানের ঐ রোজার শেষে এল খুশীর ঈদ’। জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলামের এই অমর গীতি ঘরে ঘরে সুর ছড়িয়ে যাচ্ছে।

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় জাতীয় মসজিদ বায়তুল মোকাররমে ইসলামিক ফাউন্ডেশনের সভাকক্ষে জাতীয় চাঁদ দেখা কমিটির সভায় এ ঘোষণা দেয়া হয়।

সভায় দেশের সব জেলা প্রশাসন, ইসলামিক ফাউন্ডেশনের প্রধান কার্যালয়, বিভাগীয় ও জেলা কার্যালয়সহ সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান থেকে প্রাপ্ত তথ্য পর্যালোচনা করে সন্ধ্যায় বাংলাদেশের আকাশে পবিত্র শওয়াল মাসের চাঁদ দেখা গেছে জানানো হয়।

এতে সভাপতিত্ব করেন ধর্মবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী ও জাতীয় চাঁদ দেখা কমিটির সভাপতি অ্যাডভোকেট মো: শাহজাহান মিয়া।

বৃহস্পতিবার সৌদি আরবসহ মধ্যপ্রাচ্যে ঈদুল ফিতর উদযাপিত হয়েছে। সৌদি আরবের সঙ্গে মিল রেখে বাংলাদেশের কিছু গ্রামে বৃহস্পতিবার উদযাপিত হয়েছে ঈদ।

পবিত্র ঈদুল ফিতর দেশব্যাপী যথাযথ মর্যাদা ও আনন্দ-উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে উদযাপনের লক্ষ্যে সরকার বিস্তারিত কর্মসূচি নিয়েছে। রাজধানীর সড়কদ্বীপ ও মোড়ে মোড়ে রঙিন পতাকা বসানো হয়েছে। সরকারি ও বেসরকারি ভবন ও সড়কগুলো সজ্জিতকরণসহ আলোকসজ্জা করা হয়েছে। ঈদের দিন থাকবে বিনোদনমূলক অনুষ্ঠানের আয়োজন।

ঢাকায় পবিত্র ঈদুল ফিতরের প্রধান জামাত অনুষ্ঠিত হবে হাইকোর্ট-সংলগ্ন জাতীয় ঈদগাহ ময়দানে সকাল সাড়ে আটটায়।আবহাওয়া প্রতিকূলে থাকলে ঈদুল ফিতরের প্রধান জামাত জাতীয় মসজিদ বায়তুল মোকাররমে সকাল নয়টায় হবে। বিগত বছরের মতো এবারও জাতীয় ঈদগাহ্ ও বায়তুল মোকাররম  মসজিদে  মহিলাদের জন্য ঈদুল ফিতরের নামাজ আদায়ের আলাদা ব্যবস্থা রাখা হয়েছে।

জাতীয় ঈদগাহ মাঠে ঈদের জামাতে অংশগ্রহণকারী মুসল্লিদের মোবাইল ফোন, ক্যামেরা, ভ্যানিটি ব্যাগ ইত্যাদি সঙ্গে না আনার জন্য অনুরোধ জানানো হয়েছে।

পবিত্র ঈদুল ফিতর উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ অ্যাডভোকেট, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও বিরোধীদলীয় নেতা বেগম খালেদা জিয়া পৃথক বাণী দিয়েছেন। বাণীতে তারা দেশবাসীকে আন্তরিক শুভেচ্ছা ও মোবারকবাদ জানিয়ে দেশ ও জাতির সমৃদ্ধি ও কল্যাণ কামনা করেছেন।

ঈদুল ফিতর উপলক্ষে দেশের বিভিন্ন সরকারি হাসপাতাল, কারাগার, শিশুপরিবার, ছোটমণি নিবাস, সামাজিক প্রতিবন্ধী কেন্দ্র, সরকারি আশ্রয়কেন্দ্র, শিশুবিকাশ কেন্দ্র, সেফ হোমস, ভবঘুরে কল্যাণকেন্দ্র ও দুঃস্থ কল্যাণকেন্দ্রে ঈদের দিন উন্নতমানের খাবার পরিবেশন করা হবে।

ঈদুল ফিতর উপলক্ষে ঢাকা মহানগরীর বিভিন্ন স্থানে গণযোগাযোগ অধিদপ্তরের উদ্যোগে প্রামাণ্য চলচ্চিত্র প্রদর্শন করা হবে।

ঈদের দিন সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের জন্য থাকছে ঢাকা সিটি করপোরেশনের (উত্তর ও দক্ষিণ) আওতাধীন সব শিশুপার্কে বিনা টিকিটে প্রবেশ ও বিনোদনের ব্যবস্থা। এ ছাড়া ঈদের দিন সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের বিনা টিকিটে ঢাকা জাদুঘর প্রদর্শনের ব্যবস্থা থাকবে।

যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয় এবং জাতীয় ক্রীড়া পরিষদের উদ্যোগে মহানগরীতে প্রীতি ফুটবল খেলার আয়োজিত হবে। বাংলাদেশ শিশু একাডেমীতে শিশুদের ঈদ পুনর্মিলনী অনুষ্ঠানের আয়োজন থাকছে।

জাতীয় পর্যায়ের সঙ্গে সমন্বয় রেখে স্থানীয় পর্যায়ে সিটি করপোরেশন, জেলা প্রশাসন, উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে দেশব্যাপী ঈদ উদযাপন করা হবে।

বিদেশে অবস্থিত বাংলাদেশ দূতাবাসগুলোও সরকারি কর্মসূচির আলোকে যথাযোগ্য মর্যাদায় ঈদুল ফিতর উদযাপিত হবে।

জাতীয় দৈনিক ও সাপ্তাহিক পত্রিকাগুলো ঈদুল ফিতর উপলক্ষে বিশেষ সংখ্যা প্রকাশ করেছে। বাংলাদেশ টেলিভিশন ও বেসরকারি টিভি চ্যানেলগুলো বিশেষ বিনোদনমূলক অনুষ্ঠান প্রচার করবে।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।