নির্বাচন নিয়ে কেউ প্রশ্ন উঠাতে পারবে না: প্রধানমন্ত্রী

আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচন অবাধ সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ হওয়ার আশাবাদ ব্যক্ত করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, গণতান্ত্রিক ও সাংবিধানিক প্রক্রিয়ায় হবে সেই নির্বাচন। তা নিয়ে কেউ কোনো প্রশ্ন উঠানোর সুযোগ পাবে না বলেও দৃঢ়তার সঙ্গে উল্লেখ করেছেন প্রধানমন্ত্রী।

সোমবার নিউ ইয়র্কে কমনওয়েলথের মহাসচিব কমলেশ শর্মার সঙ্গে  সাক্ষাৎকালে প্রধানমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সচিব আবুল কালাম আজাদ সাংবাদিকদের কাছে এ তথ্য জানান।

শেখ হাসিনা বলেন, “বাংলাদেশের নির্বাচন কমিশন বর্তমানে সম্পূর্ণ স্বাধীন। সরকারের কোনো ধরনের হস্তক্ষেপ ছাড়াই নির্বাচন কমিশন কাজ করে যাচ্ছে।” তিনি বলেন, “নির্বাচনের নিরপেক্ষতা নিয়ে কেউ কোনো ধরনের প্রশ্ন উত্থাপন করতে পারবে না। কারণ সরকার নির্বাচন কমিশনের কাজে হস্তক্ষেপ করবে না।”

সাক্ষাৎকালে কমনওয়েলথের মহাসচিব শেখ হাসিনাকে নভেম্বরে শ্রীলঙ্কায় অনুষ্ঠিতব্য কমনওয়েলথের বৈঠকে যোগ দেয়ার আহ্বান জানিয়েছেন। ওই বৈঠকে শেখ হাসিনার উপস্থিতি গুরুত্বপূর্ণ জানিয়ে কমলেশ বলেছেন, বৈঠকে দারিদ্র বিমোচন ও সদস্য দেশগুলোর উন্নয়নের ওপর বিশেষভাবে জোর দেয়া হবে।

এসময় পূববর্তী কমনওয়েলথ সম্মেলেন শেখ হাসিনার ভূমিকার কথাও উল্লেখ করেন কমনওয়েলথের মহাসচিব।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের (ইউএনজিএ) ৬৮তম অধিবেশনে যোগ দিতে আট দিনের সরকারি সফরে সোমবার সকালে নিউ ইয়র্ক পৌঁছেন। প্রধানমন্ত্রী আগামী ২৭ সেপ্টেম্বর ইউএনজিএ’র ৬৮তম অধিবেশনে ভাষণ দেবেন। এছাড়া তিনি বেশ কিছু উচ্চ পর্যায়ের বৈঠকে যোগ দেবেন এবং দ্বিপাক্ষিক আলোচনা করবেন। শেখ হাসিনা ভারতের প্রধানমন্ত্রী ড. মনমোহন সিং ও জাতিসংঘ মহাসচিব বান-কি-মুনের সংগে বৈঠক করবেন।

প্রধানমন্ত্রী ২৯ সেপ্টেম্বর সকালে দেশের উদ্দেশে নিউইয়র্ক ত্যাগ করবেন এবং তিনি দুবাই হয়ে ৩০ সেপ্টেম্বর স্থানীয় সময় বিকেল পাঁচটা ৪০ মিনিটে ঢাকায় এসে পৌঁছবেন বলে আশা করা হচ্ছে।


সম্পাদনা: শামীম ইবনে মাজহার,নিউজরুম এডিটর

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।