পাকিস্তানের পার্লামেন্টে নিন্দা প্রস্তাব গ্রহণ হস্তক্ষেপ নয়: পাকিস্তান

ইসলামাবাদ: জামায়াতে ইসলামীর সহকারী সেক্রেটারি জেনারেল আবদুল কাদের মোল্লার ফাঁসি কার্যকর নিয়ে পাকিস্তানের পার্লামেন্টে গৃহীত নিন্দা প্রস্তাব বাংলাদেশের অভ্যন্তরীণ বিষয়ে হস্তক্ষেপ নয় বলে মন্তব্য করেছেন দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র তাসনিম আসলাম।

শুক্রবার সাপ্তাহিক ব্রিফিংয়ে বাংলাদেশ প্রসঙ্গে এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এ মন্তব্য করেন।

বাংলাদেশের পরিস্থিতি সম্পর্কে পাকিস্তানের অবস্থান কী, জানতে চাইলে তাসনিম আসলাম বলেন, “পাকিস্তান ও বাংলাদেশের দীর্ঘদিনের ঐতিহাসিক অংশীদারি রয়েছে। দক্ষিণ এশিয়ার মুসলিম দেশ হিসেবে আমরা একসঙ্গে ব্রিটিশ শাসনের বিরুদ্ধে লড়াই করেছি। একাত্তর পর্যন্ত আমরা একসঙ্গে ছিলাম। বাংলাদেশে যা ঘটেছে, অবধারিতভাবে সেটা দেশটির অভ্যন্তরীণ বিষয়।” পার্লামেন্টে কোনো প্রস্তাব গ্রহণ করা মানে কোনো দেশের অভ্যন্তরীণ বিষয়ে হস্তক্ষেপ নয় বলে মন্তব্য করেন তিনি।

বাংলাদেশের পরিস্থিতি নিয়ে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের বিবৃতি ও পার্লামেন্টে গৃহীত প্রস্তাব পরস্পরবিরোধী কি না জানতে চাইলে পাকিস্তানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র বলেন, “পাকিস্তানের পার্লামেন্ট সার্বভৌম সংস্থা। এর সদস্যরা জনগণের মতামতের বহিঃপ্রকাশ ঘটান। তবে এটি নিশ্চিত যে পার্লামেন্টের প্রস্তাবের উদ্দেশ্য হস্তক্ষেপ নয়।”

বাংলাদেশে পাকিস্তানের পতাকা ও নেতাদের কুশপুত্তলিকা পোড়ানোর বিষয়টি জানালে তাসনিম আসলাম বলেন, “ঢাকায় নিযুক্ত পাকিস্তানের হাইকমিশনারকে বাংলাদেশের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে তলব করে একটি কূটনৈতিক চিঠি  দেওয়া হয়েছে, এটা নিশ্চিত করছি। ঢাকায় বিক্ষোভের সময় সেখানকার লোকজন কী বক্তব্য দিয়েছে, তা নিয়ে আমরা কোনো মন্তব্য করতে চাই না।  তবে ভ্রাতৃপ্রতিম ও বন্ধুপ্রতিম বাংলাদেশকে আমরা ’৭৪-এর ত্রিপক্ষীয় চুক্তির অনুসরণে মীমাংসা ও আন্তরিকতার মূলনীতি মেনে চলার আহ্বান জানাই। আমরা বাংলাদেশের জনগণের শান্তি, স্থিতিশীলতা ও অগ্রযাত্রা কামনা করি।” সূত্র: ওয়েবসাইট।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।