কর্মকর্তাদের বদলির হিড়িক

নির্বাচন কমিশন (ইসি) নির্বাচনী দায়িত্বে অবহেলা ও কমিশনের নির্দেশ অমান্য করার অভিযোগে প্রতিদিনই রিটানিং অফিসারসহ মাঠ প্রশাসনের কর্মকর্তাদের বদলি করছে। বুধবার গাইবান্ধা, লক্ষীপুর ও যশোর জেলার দু’জন রিটানিং অফিসার ও দু’জন পুলিশ সুপারকে বদলির নির্দেশ দেয়া হয়েছে কমিশন থেকে।   এছাড়াও আরো আটজন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে বদলি করেছে নির্বাচন কমিশন। এর বাইরে রয়েছে একজন ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রয়েছে।

নির্বাচন কমিশন সূত্রে জানা গেছে, ক্ষমতাসীন সরকারে প্রভাবশালী রাজনীতিবিদদের নির্দেশেই বদলি করা হচ্ছে। বুধবার বিকেল প্রায় পৌনে চারটার দিকে যশোর-৫ আসনের সরকার দলীয় এমপি খান টিপু সুলতান ইসিতে উপস্থিত হয়ে যশোরের পুলিশ সুপারের বিরুদ্ধে অভিযোগ করেন। এমপি মনোয়ার হোসেন গাইবান্ধার প্রশাসনের ওই ব্যক্তিদের অভিযোগ করেন। এর পরিপ্রেক্ষিতে এসব কর্মকর্তাদের বদলির নির্দেশনা দেয় ইসি।

জানা গেছে, গাইবান্ধা জেলা প্রশাসক মো.জহিরুল ইসলাম রোহেলকে বদলি করে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের উপ-সচিব হিসেবে পদায়ন করেছে। আর রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের সচিব (উপ-সচিব) মো. এহছানে এলাহীকে গাইবান্ধার ডিসি করে বুধবার আলাদা আদেশ জারি করেছে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়।

লক্ষীপুরের জেলা প্রশাসক এ কে এম মিজানুর রহমানকে বুধবার বদলির নির্দেশ দিয়েছে ইসি। পাশাপাশি গাইবান্ধা সাজিদ হোসেন ও যশোর জেলা পুলিশ সুপার জয়দেব ভদ্র ও সুনামগঞ্জের দোয়ারা উপজেলার ওসিকে বদলির নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

মঙ্গলবার রাতে নির্বাচনে দায়িত্বে অবহেলার দায়ে গাইবান্ধা, কুড়িগ্রাম, পঞ্চগড় ও দিনাজপুরের ৮ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে (ইউএনও) বদলির নির্দেশ দিয়েছে নির্বচান কমিশন (ইস)। বদলীকৃত কর্মকর্তারা হলেন- পঞ্চগড়ের দেবীগঞ্জের মাহবুবুল হক, দিনাজপুরের নবাবগঞ্জের আহসান হাবীব, নীলফামারীর ডিমলার আবু রাফা মোহাম্মদ আরিফ, কুড়িগ্রামের চিলমারীর মাহমুদুল হাসান, গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জের আহসান হাবীব, সাদুল্লাপুরের সৈয়দ ফরহাদ হোসেন, পলাশবাড়ির তোফাজ্জল হোসেন এবং গোবিন্দগঞ্জের মো. আশরাফুজ্জামান।

এ সম্পর্কে নির্বাচন কমিশনার মো. শাহ নেওয়াজ  বলেন, “আমরা শতভাগ নিরপেক্ষ। তাই নির্বাচনী কাজে গাফিলতি ও অনিয়ম কোনো অবস্থাতে বরদাশত করা হবে না। ইতিমধ্যে গাইবান্ধা, লক্ষীপুর ও যশোর জেলার নির্বাচনী কর্মকর্তাদের বদলির জন্য নির্দেশনা দিয়েছি। এর বাইরে কোন অভিযোগ পাওয়া গেলে তাৎক্ষণিক ব্যবস্থা নেয়া হবে।”

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।