সরকারের সার্বিক উন্নয়নে ৮ কমিটি গঠন

বর্তমান সরকারের সার্বিক উন্নয়ন কর্মকাণ্ড পরিচালনা ও বাস্তবায়নে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে আটটি কমিটি গঠন করা হয়েছে। এছাড়া প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে চেয়ারপারসন করে বাংলাদেশ পরিকল্পনা  কমিটি গঠন করেছে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ।

মঙ্গলবার মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ কমিটি শাখা থেকে এ সংক্রান্ত পৃথক কয়েকটি প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়েছে। মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের সহকারী সচিব জয়নাল আবেদীন স্বাক্ষরিত এ প্রজ্ঞা্পন জারি করা হয়।

কমিটিগুলো হচ্ছে- খাদ্য পরিকল্পনা ও পরিধারণ কমিটি, জাতীয় শিল্প পরিষদ, সার্বিক দিক নির্দেশনা কমিটি, বাংলাদেশ পরিকল্পনা কমিশন, মৎস ও চিংড়ি সংক্রান্ত জাতীয় কমিটি এবং জাতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি পরিষদের নির্বাহীকমিটি।

খাদ্য পরিকল্পনা ও পরিধারণ কমিটি
খাদ্যমন্ত্রীকে সভাপতি করে ১৭ সদস্যের খাদ্য পরিকল্পনা ও পরিধারণ কমিটি গঠন করা হয়েছে। কমিটির কার্যপরিধিও নির্ধারণ করা হয়েছে। কার্যপরিধির মধ্যে রয়েছে কমিটি সার্বিক খাদ্য পরিস্থিতির ওপর নিয়মিত নজর রাখবে। কমিটি খাদ্যশস্য উৎপাদনের পরিসংখ্যান, খাদ্যশস্যেও চাহিদা নিরূপণ খাদ্যশস্যেও মজুদ, সামগ্রিক খাদ্য ব্যবস্থাপনা, খাদ্য ও পুষ্টি নিরাপত্তা এবং খাদ্য সম্পর্কিত অন্যান্য বিষয় পর্যালোচনা করে সঠিক সিদ্ধান্ত গ্রহণে সরকারকে পরামর্শ দেবে। খাদ্য মন্ত্রণায়ের খাদ্য খাদ্য পরিকল্পনা ও পরিধারণ ইউনিট কমিটিকে সাটিবিক সহায়তা দেবে।

সার্বিক দিক-নির্দেশনা কমিটি
শিল্পমন্ত্রীকে আহ্বায়ক করে ১৬ সদস্যের সার্বিক দিক-নির্দেশনা কমিটি গঠন করা হয়।
কমিটির কার্যপরিধিতে বলা হয়েছে, দেশে পরিকল্পিত ও সুষ্ঠু শিল্পায়নে শিল্পোদ্যাক্তাদের শিল্প কারখানাগুলোর বিদ্যমান বিবিধ সমস্যা নিরসনে বিভিন্ন মন্ত্রণালয় ও সংস্থাগুলোর মধ্যে সমন্বয় সাধন করে প্রয়োজনীয় সুপারিশ প্রণয়ন ও সহায়তা দেবে। এই কমিটি তিন মাস পর পর কমিটির সভা অনুষ্ঠিত হবে।

জাতীয় শিল্প উন্নয়ন পরিষদ
প্রধানমন্ত্রীকে সভাপতি করে ৪১ সদস্যের জাতীয় শিল্প উন্নয়ন পরিষদ (এনসিআইডি) গঠন করা হয়েছে। এ পরিষদ বিভিন্ন কার্যক্রম তদারিক করবে। পরিষদের কার্যপরিধির মধ্যে রয়েছে  আবেদনকারী কোনো উদীয়মান যোগ্য শিল্প প্রতিষ্ঠানকে অগ্রধিকারপ্রাপ্ত শিল্পখাতে অন্তর্ভুক্তির ঘোষণা। অগ্রধিকারপ্রাপ্ত শিল্পখাতের পর্যালোচনাও তালিকা হালনাগাদ করাসহ  প্রনোদনার ধরণ ও শর্ত নির্ধারণ। দেশের শিল্প উন্নয়নে শিল্পনীতি বাস্তবায়ন পর্যালোচনা।

এছাড়া জাতীয় শিল্প উন্নয়ন পরিষদ প্রতি ছয় মাসে একটি সভা করবে। শিল্প মন্ত্রণালয় এ পরিষদকে সাচিবিক সহায়তা করবে। পরিষদ বিশেষ প্রয়োজনবোধে আরো সদস্য অন্তর্ভুক্ত করতে পারবে।

মৎস্য ও চিংড়িসংক্রান্ত জাতীয় নির্বাহী কমিটি
মৎস্য ও চিংড়িসংক্রান্ত ২২ সদস্যের জাতীয় কমিটির চেয়ারপার্সন হচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ভাইস চেয়ারম্যান মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী, অন্য সদস্যরা হলেন- শিল্পমন্ত্রী, বাণিজ্যমন্ত্রী, কৃষিমন্ত্রী, স্থানীয় সরকার মন্ত্রী, পানি সম্পদমন্ত্রী, পরিবেশ ও বনমন্ত্রী, ভূমিমন্ত্রী, খাদ্যমন্ত্রী, অর্থমন্ত্রণালয়ের অর্থ এবং ব্যাংক ও আার্থিক প্রতিষ্ঠানের সচিবসহ আরো অনেকে।

এছাড়া মৎস্য ও চিংড়িসংক্রান্ত জাতীয় কমিটিকে সহায়তার জন্য ২৬ সদস্যের একটি নির্বাহী কমিটিও গঠন করা হয়েছে- এ কমিটির সভাপতি হচ্ছেন মৎস্য ও প্রাণি সম্পদমন্ত্রী।

বাংলাদেশ পরিকল্পনা কমিশন
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে চেয়ারপারসন করে বাংলাদেশ পরিকল্পনা কমিটি গঠন করা হয়। কমিটির কার্যপরিধিতে বলা হয়েছে, দেশের সার্বিক অর্থনৈতিক পরিস্থিত পর্যালোচনা করবে এই কমিটি। জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদে উপস্থাপনের জন্য স্বল্প, মধ্য ও দীর্ঘমেয়াদী পরিকল্পনা এবং পঞ্চবার্ষিক পরিকল্পনা বাস্তবায়ণ পযালোচনা ও হালনাগাদকরণে নির্দেশ দেবে। পরিকল্পনার গুরুত্বপূর্ণ কৌশলগত বিষয়াবলি সম্পর্কে আন্তঃমন্ত্রণালয় মতপার্থক্য দূর করবে।

এ কমিটির সদস্যরা হলেন, পরিকল্পনা মন্ত্রী আ হ ম মোস্তফা কামালকে ভাইন্স চেয়ারম্যান পরিকল্পনা কমিশনের সদস্যবৃন্দদের সদস্য এবং পরিকল্পনা বিভাগের সচিবকে সদস্য করা হয়েছে।

এছাড়া জাতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি পরিষদের নির্বাহী ৫২ সদস্য কমিটি গঠন করা হয়েছে।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।