শেষ ধাপে ১৩ উপজেলায় ভোটগ্রহণ চলছে, সহিংসতার শঙ্কা

চতুর্থ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের শেষ ধাপে ১৩ উপজেলায় ভোটগ্রহণ চলছে। সোমবার সকাল আটটায় ভোটগ্রহণ শুরু হয়েছে, চলবে বিকেল চারটা পর্যন্ত। নির্বাচনের কারণে সংশ্লিষ্ট উপজেলায় সরকারি ছুটি ঘোষণা করেছে স্থানীয় প্রশাসন। এছাড়া নির্বাচনী এলাকায় অনুমোদনহীন যানবাহনের ওপর নিষেধাজ্ঞা থাকছে। তবে নির্বাচন কমিশনের স্টিকারযুক্ত যানবাহন চলাচল করতে পারবে।

এদিকে, আগের ধাপগুলোর মতোই এ ধাপেও সহিংসতার আশঙ্কা করছেন সংশ্লিষ্ট এলাকার ভোটাররা। তবে নির্বাচন কমিশন আশ্বস্ত করেছে, যেকোনো মূল্যে সবধরনের সহিংসতা ও অনিয়ম ঠেকাতে তারা প্রয়োজনীয় ভূমিকা নেবে। সেনাবাহিনীসহ আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা নির্বাচনী এলাকায় মোতায়েন রয়েছেন। প্রয়োজনীয় মুহূর্তে এ পর্বে সেনাবাহিনীও হস্তক্ষেপ করবে বলে জানিয়েছে নির্বাচন কমিশন।

নির্বাচন কমিশন জানায়, প্রতি উপজেলায় এক প্লাটুন সেনাবাহিনী নিয়োজিত থাকবে। সেনাবাহিনীর সঙ্গে থাকবে কমান্ডিং অফিসার ও একজন ম্যাজিস্ট্রেট। সেনাবাহিনীর পাশাপাশি মাঠে থাকবে ভ্রাম্যমাণ মোবাইল টিম, র্যা ব, বিজিবি, পুলিশ ও আনসার, কোস্টগার্ড।

যে ১৩ উপজেলায় নির্বাচন চলছে: রংপুর সদর, কাউনিয়া, গঙ্গাচড়া, পীরগাছা; সিরাজগঞ্জের কামারখন্দ; বরগুনার তালতলী; রাজবাড়ীর কালুখালী; গাজীপুর সদর; টাঙ্গাইলের বাসাইল; ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বিজয়নগর; কুমিল্লার আদর্শ সদর ও সদর দক্ষিণ। তবে এর মধ্যে ময়মনসিংহের তারাকান্দা উপজেলায় শুধু চেয়ারম্যান পদে উপ-নির্বাচন অনুষ্ঠিত হচ্ছে।

ষষ্ঠ ধাপে মোট ১৮২ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। এর মধ্যে চেয়ারম্যান পদে ৬৪ জন, ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৬৯ জন এবং মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৪৯ জন।

১৩টি উপজেলা মোট ১৮ লাখ ৪৫ হাজার ১৩৩ জন ভোটার তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করবেন। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার ৯ লাখ ১৫ হাজার ৮৭ জন। নারী ভোটার ৯ লাখ ৩০ হাজার ৪৬ জন। মোট ভোট কেন্দ্রের সংখ্যা ৭৪৬টি, মোট ভোট কক্ষের সংখ্যা ৪ হাজার ৯৩০টি।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।