রাজধানীর বাড্ডায় পুলিশ-শ্রমিক ব্যাপক সংঘর্ষ, বেশ কয়েকজন আহত, মিশু-জলি গ্রেপ্তার

রাজধানীর বাড্ডার হোসেন মার্কেটে আন্দোলনরত তোবা গ্রুপের পোশাক শ্রমিকদের সঙ্গে পুলিশের ব্যাপক সংঘর্ষ হয়েছে। এতে  হয়েছে। শ্রমিক নেত্রী মোশরেফা মিশু ও জলিকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার দুপুরে সংঘর্ষের এক পর্যায়ে পুলিশ তোবা গ্রুপের কারখানায় ঢুকে টিয়ার গ্যাস ব্যবহার করে ও পিটিয়ে আন্দোলনকারীদের বের করে দেয়।

এরপর হোসেন মার্কেটের সামনে থেকে গার্মেন্টস শ্রমিক ঐক্য ফেডারেশন সভাপতি মোশরেফা মিশু ও গার্মেন্টস শ্রমিক ট্রেড ‍ইউনিয়ন কেন্দ্রের যুগ্ম-সম্পাদক জলি তালুকদারকে আটক করেছে পুলিশ।

বেলা পৌনে দুইটার দিকে তাদের টেনে-হিঁচড়ে পুলিশের গাড়িতে করে নিয়ে যাওয়া হয়।

আগের দিনের মতো বৃহস্পতিবার সকাল থেকেই মার্কেটের প্রধান ফটকে কড়া পাহারায় ছিল পুলিশ। বেলা সোয়া একটার দিকে তারা ভবনের সপ্তম তলায় গিয়ে অনশনকারীদের ওপর চড়াও হয়।

এক পর্যায়ে দুই শতাধিক শ্রমিক আতঙ্কিত হয়ে সাত তলা থেকে নেমে আসেন। সেখানেও তাদের ওপর জলকামান ব্যবহার করে ছত্রভঙ্গ করে দেওয়া হয়।

তোবা গ্রুপের অপারেট হোসনে আরা কাঁদতে কাঁদতে বলেন, ‘পুলিশ নির্বিচারে আমাদের ওপর গ্যাস মেরেছে। লাঠি দেয়ে পিটিয়ে কারখানা থেকে নামিয়ে দিয়েছে।’

এ সময় বাইরে বেশ কিছু ফাঁকা গুলিও ছোড়া হয় বলে আন্দোলনরত শ্রমিকেরা জানিয়েছেন।

এদিকে, উদ্ভুত পরিস্থিতিতে তোবা গ্রুপের আশপাশের কারখানায় বৃহস্পতিবার ছুটি ঘোষণা করা হয়েছে।

 

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।