কড়া নিরাপত্তার মধ্যে তিন সিটি করপোরেশনে ভোটগ্রহণ শুরু

কড়া নিরাপত্তার মধ্যে তিন সিটি করপোরেশনে ভোটগ্রহণ শুরু হয়েছে। মঙ্গলবার সকাল আটটা থেকে উত্তর ও দক্ষিণ ঢাকা এবং চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনে এই ভোট হচ্ছে। একটানা বিকেল চারটা পর্যন্ত ভোটগ্রহণ করা হবে। ভোট উপলক্ষে তিন সিটিতে সাধারণ ছুটি ঘোষণা করা হয়েছে।

 

স্থানীয় এবং অরাজনৈতিক নির্বাচন হলেও একে ঘিরে জাতীয় নির্বাচনের মতই উত্তেজনা তৈরি হয়েছে। নির্বাচন নিয়ে সারাদেশের মানুষের পাশাপাশি বিদেশিদেরও আগ্রহ রয়েছে। মানুষের মধ্যে ভোট নিয়ে আগ্রহের পাশাপাশি নির্বাচন সুষ্ঠু হবে কি না, তা নিয়ে শঙ্কা-সংশয়ও তৈরি হয়েছে।

 

সেনা মোতায়েন নিয়ে নির্বাচন কমিশনের ভূমিকা, বিরোধী দল সমর্থিত প্রার্থীদের কর্মীসমর্থকদের পুলিশি হয়রানি, খালেদা জিয়ার গাড়িবহরে পর পর তিন দিন হামলা এবং ঢাকা ও চট্টগ্রামে দুই মেয়র প্রার্থীর ওপর হামলাসহ বিভিন্ন ঘটনায় প্রার্থীদের পাশাপাশি ভোটারদের মধ্যেও এক ধরনের ভীতি ছড়িয়েছে।

 

তিন সিটিতে এবার মোট প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীর সংখ্যা ১১৮০। এর মধ্যে উত্তরে মেয়র পদে ১৬, সাধারণ কাউন্সিলর ২৮১ এবং সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলর ৮৯। দক্ষিণে মেয়র পদে ২০, সাধারণ কাউন্সিলর পদে ৩৯০ এবং সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলর পদে ৯৭।

একইভাবে চট্টগ্রামে মেয়র পদে রয়েছেন ১২, সাধারণ কাউন্সিলর পদে ২১৩ এবং সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলর পদে ৬২।

ঢাকা উত্তর সিটিতে সাধারণ ওয়ার্ড ৩৬, সংরক্ষিত ওয়ার্ড ১২; ভোটার ২৩ লাখ ৪৫,৩৭৪। ঢাকা দক্ষিণ সিটিতে সাধারণ ওয়ার্ড ৫৭, সংরক্ষিত ওয়ার্ড ১৯; ভোটার ১৮ লাখ ৭০,৭৫৩ জন। চট্টগ্রাম সিটিতে সাধারণ ওয়ার্ড ৪১, সংরক্ষিত ওয়ার্ড ১৪; ভোটার ১৮ লাখ ১৩,৪৪৯।

ভোটকেন্দ্র ঢাকা উত্তরে ১০৯৩ ও ভোটকক্ষ ৫৮৯২টি, ঢাকা দক্ষিণে ভোটকেন্দ্র ৮৮৯ ও ভোটকক্ষ ৪৭৪৬টি এবং চট্টগ্রামে ভোটকেন্দ্র ৭১৯ ও ভোটকক্ষ ৪৯০৬টি।

ভোট ঘিরে রবিবার রাত থেকে নিরাপত্তার জন্য মাঠে নেমেছেন ৮০,০০০ আনসার, পুলিশ, র্যা সহ অন্যান্য আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য। তাৎক্ষণিক বিচারকাজে দায়িত্ব পালন করবেন ৪৭৬ জন ম্যাজিস্ট্রেট।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।