ব্লগার হত্যার সঙ্গে জড়িত ৬ জঙ্গিকে ধরতে বিমানবন্দর ও স্থলবন্দরে রেড এলার্ট

শুক্রবার সকালে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল তার বাসভবনে সাংবাদিকদের বলেছেন ব্লগার হত্যার সঙ্গে জড়িত সন্দেহে আনসারুল্লাহ বাংলা টিমের ছয় জঙ্গি যেন দেশত্যাগ করতে না পারে সে জন্য বিমানবন্দর ও স্থলবন্দরে রেড অ্যালার্ট জারি করা হয়েছে।
স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, “বিগত কয়েক বছরে দেশে ব্লগার ও ভিন্ন মতাবলম্বী বেশ কয়েকজন হত্যার শিকার হয়েছে। অনেকগুলো হত্যার সঙ্গে এই ছয়জন জড়িত আছেন বলে প্রমাণ পাওয়া গেছে। এদের ধরতে তাই চেষ্টা চালানো হচ্ছে।”
কলাবাগানের জোড়া খুন, লেখক অভিজিৎ রায়, ফয়সল আরেফিন দীপন, নীলাদ্রি চ্যাটার্জি নিলয়, জবি ছাত্র নাজিমুদ্দিন সামাদসহ আট লেখক-প্রকাশক ও ব্লগার হত্যায় জড়িত সন্দেহে ছয়জনকে শনাক্ত করেছে ঢাকা মহানগর পুলিশ।

পুলিশ বলছে, শনাক্ত হওয়া ছয়জন নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গি সংগঠন আনসারুল্লাহ বাংলা টিমের (এবিটি) সক্রিয় সদস্য।

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় গণমাধ্যমে তাদের ছবিসহ বিস্তারিত তথ্য পাঠিয়ে পুলিশ তাদের ধরিয়ে দিতে পুরস্কার ঘোষণা করেছে। ‘ডিএমপি নিউজ পোর্টালে’ও তাদের ছবিসহ তথ্য প্রকাশ পেয়েছে।

যে ছয়জনের ছবি ও নাম প্রকাশ করা হয়েছে তারা হলেন- এবিটির শীর্ষ পর্যায়ের সংগঠক শরিফুল ওরফে সাকিব ওরফে শরিফ ওরফে সালেহ ওরফে আরিফ ওরফে হাদী-১ ও সেলিম ওরফে ইকবাল ওরফে মামুন ওরফে হাদী-২, সদস্য সিফাত ওরফে সামির ওরফে ইমরান, আবদুস সামাদ ওরফে সুজন ওরফে রাজু ওরফে সালমান ওরফে সাদ, শিহাব ওরফে সুমন ওরফে সাইফুল ও সাজ্জাদ ওরফে সজীব ওরফে সিয়াম ওরফে শামস।

কোন হত্যার ঘটনায় কারা কীভাবে জড়িত ছিল, সেই ব্যাখ্যাও দিয়েছে পুলিশ। এই প্রথম উগ্রপন্থিদের তথ্যসহ ছবি প্রকাশ করে ধরিয়ে দেয়ার আহ্বান জানিয়ে ১৮ লাখ টাকা পুরস্কার ঘোষণা করা হলো।

এর আগে নববর্ষে টিএসসিতে শ্লীলতাহানি ও মতিঝিলে জামায়াত-শিবিরের ভাঙচুরের ঘটনায় জড়িতদের ধরিয়ে দিতে পুরস্কার ঘোষণা করা হয়েছিল।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।